সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ৫ মাঘ ১৪২৭

মামুনুলের অবস্থান নিয়ে ‘ধোঁয়াশা’, সড়কে যুবলীগ-ছাত্রলীগের অবস্থান

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, নভেম্বর ২৭, ২০২০, ১:৩২ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপনের বিরোধিতাকারী হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে চট্টগ্রামে প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়ে শুক্রবার সকাল থেকে বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নিয়েছে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

আজ শুক্রবার বিকেলে হাটহাজারী পার্বতী স্কুল মাঠে আয়োজিত তাফসিরুল কোরআন মাহফিলের সমাপনী দিবসে প্রধান আলোচক হিসেবে মামুনুল হকের বক্তৃতা দেয়ার কথা রয়েছে।

শুক্রবার সকালে মামুনুল হককে প্রতিরোধ করতে বিমানবন্দরের প্রবেশমুখে দুই ঘণ্টা অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতাকর্মীরা। এসময় তারা মামুনুলের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন। এ সমাবেশের নেতৃত্ব দেন চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দীন বাচ্চু।

নগর ছাত্রলীগের উপবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমরা পতেঙ্গা থানাসহ মহানগরের বিভিন্ন ওয়ার্ডের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা প্রথমে বিমানবন্দরের মূল প্রবেশমুখে টার্নিংয়ে অবস্থান নিই। যুবলীগের নেতাকর্মীরাও মিছিল নিয়ে এসেছেন। নগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দীন বাচ্চু ভাইয়ের নেতৃত্বে আমরা সমাবেশ করেছি।’

মহিউদ্দীন বাচ্চু একুশে পত্রিকাকে বলেন, ‘সকাল ১০টা থেকে আমরা বেলা ১২টা পর্যন্ত বিমানবন্দরের সামনে অবস্থান নিয়েছি। জুমার নামাজের পর বিভিন্ন পয়েন্টে আমাদের নেতাকর্মীরা অবস্থান নেবেন।’

এদিকে হেফাজতে ইসলামের নেতা মাওলানা মামুনুল হককে প্রতিহতের ঘোষণা দিয়ে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ।

আজ শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে চট্টগ্রাম-হাটহাজারী সড়কের ১ নম্বর গেট এলাকায় এ কর্মসূচি পালন করে কয়েকশ নেতাকর্মী। পরে পুলিশ এসে সাড়ে ১২ টার দিকে অবরোধ সরিয়ে দেয়।

এদিকে শুক্রবার সকাল থেকে একটি তথ্য ছড়িয়ে পড়েছে যে, মামুনুল হক ইতিমধ্যে হাটহাজারীতে এসে পৌঁছেছেন। কেউ বলছেন, শুক্রবার সকালে তিনি হাটহাজারীতে এসেছেন, আবার কেউ বলছেন, বৃহস্পতিবার রাতেই এসেছেন।

জানতে চাইলে পার্বতী স্কুল মাঠে ওই তাফসির মাহফিলে মাহফিলের আয়োজক সংগঠন আল-আমিন সংস্থার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাওলানা ওসমান একুশে পত্রিকাকে বলেন, জুমার পরে মামুনুল হক চট্টগ্রামে আসবেন।

তিনি একুশে পত্রিকাকে বলেন, আল্লামা মামুনুল হকের চট্টগ্রামে আসাকে কেন্দ্র করে কে কী বলল সেটা আমাদের দেখার বিষয় নয়। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপন নিয়ে মামুনুল হক যা বলেছেন তা এদেশের কোটি কোটি তওহীদি জনতার কথা।

এদিকে মামুনুল হকের চট্টগ্রাম আসা ঠেকাতে অনুষ্ঠানস্থল থেকে পাঁচ কিলোমিটার দক্ষিণে উপজেলার ফতেয়াবাদে আজ জুমার নামাযের পর এক সমাবেশের ডাক দিয়েছে স্থানীয় ছাত্রলীগ-যুবলীগ। তাদের এ আয়োজনকে কেন্দ্র করে সংঘাতের আশঙ্কা করা হচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেখানে সকাল থেকে পুলিশ সদস্যরা অবস্থান নিয়েছেন।

অন্যদিকে হাটহাজারী মাদ্রাসার বিভিন্ন ছাত্র ফেসবুকে স্ট্যাটাস ও ছবি শেয়ার করে জানাচ্ছেন, মামুনুল হক হাটহাজারীতে এসে পৌঁছেছেন। এসব স্ট্যাটাসে গাড়িতে বসা অবস্থায় মামুনুল হকের যে ছবি ব্যবহার করা হচ্ছে, তা পুরনো বলে একুশে পত্রিকা যাছাই করে দেখেছে।

মামুনুলের অবস্থানের বিষয়ে জানতে চাইলে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রুহুল আমিন বলেন, এ বিষয়ে আমার কাছে তথ্য নেই।

চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেনও একই কথা বলেন। তিনি বলেন, এ বিষয়ে আয়োজকরা ভালো জানবেন। তবে পরিস্থিতি যাতে অশান্ত না হয় সেজন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সবরকম প্রস্তুতি আছে।