বুধবার, ৩ মার্চ ২০২১, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭

বিশ্বের এক চতুর্থাংশ করোনা আক্রান্ত এখন যুক্তরাষ্ট্রে

প্রকাশিতঃ সোমবার, জানুয়ারি ২৫, ২০২১, ১:২১ অপরাহ্ণ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আড়াই কোটির ঘর পেরিয়েছে। এরমধ্য দিয়ে দেশটি বিশ্বের এক চতুর্থাংশ করোনা আক্রান্ত জনসংখ্যার দেশে পরিণত হল। করোনার এমন পরিস্থিতির জন্য প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের চীফ অফ স্টাফ ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনকে দুষেছেন। তাঁর অভিযোগ রাজ্যগুলোকে প্রয়োজনীয় টিকা দিতে ব্যর্থ হয়েছে ট্রাম্প সরকার।

এদিকে জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের এক তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী যত করোনা আক্রান্ত আছে তার এক চতুর্থাংশেরও বেশি আছে যুক্তরাষ্ট্রে।

আল জাজিরা জানায়, নতুন সরকার আশা করছে যে টিকার বিস্তার এই রোগ প্রকোপ কমাতে সাহায্য করবে। তবে তারা টিকা বন্টনে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ের প্রতিবন্ধকতা এবং কিছু অংশে ঘাটতি খুঁজে পেয়েছে।

রবিবার এনবিসির মিট দ্যা প্রেসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে চীফ অফ স্টাফ রন ক্লেইন বলেন, “ক্ষমতার শেষ মাসগুলোতে মহামারি বেড়ে যাওয়ার পরও ট্রাম্প প্রশাসন কোভিড-১৯ টিকার রাষ্ট্রীয় পর্যায়ের বিতরণ নিয়ে তেমন পরিকল্পনা হাতে নেয়নি। এই টিকা বিতরণের প্রক্রিয়া, বিশেষ করে নার্সিং হোম এবং হাসপাতালের বাইরে, সামগ্রিকভাবে পুরো কমিউনিটিতে খুব একটা দেখা যায়নি। ”

আল জাজিরা জানায়, ট্রাম্প প্রশাসনের অপারেশন ওয়ার্প স্পিড টিকা উন্নয়ন এবং উৎপাদনে সাহায্য করলেও তা বিতরণে অনেকটা পিছিয়ে গেছে। এর ফলে যুক্তরাষ্ট্র ২০২০ সালের শেষনাগাদ ২ কোটি মানুষকে টিকা দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা থেকে বিচ্যুত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

ইউএস সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে বিতরণ করা ৪কোটি ১৪ লক্ষ টিকার প্রায় অর্ধেক এ পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে।
ট্রাম্পের অধীনে, ফেডারেল সরকার জনসংখ্যার উপর ভিত্তি করে রাজ্যগুলিতে বরাদ্দ করা হয়। তবে প্রয়োগের দায়িত্ব রাজ্য সরকারের উপর ছেড়ে দেওয়া হয়।

শীর্ষ মার্কিন সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসি, যিনি ট্রাম্পের অধীনে করোনাভাইরাস টাস্ক ফোর্সে কাজ করতেন, তিনি শুক্রবার বলেন যে পূর্ববর্তী প্রশাসন রাষ্ট্রের অনেক দায়িত্ব দিয়ে দায়সারা ভাব দেখিয়েছে।
রবিবার ক্লেইন এর প্রতিধ্বনি করেছেন। তিনি বলেছেন, “আমরা সারা দেশে এই বিষয়টি দেখেছি যেখানে লক্ষ লক্ষ ডোজ বিতরণ করা হয়েছে, কিন্তু মাত্র অর্ধেক দেওয়া হয়েছে।”