শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮

আনোয়ারায় প্রকাশ্যে মাছে মিশানো হচ্ছে বিষাক্ত রং!

প্রকাশিতঃ বুধবার, মার্চ ৩, ২০২১, ৩:৫২ অপরাহ্ণ

আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি: বাজারে বিক্রি হওয়া বিভিন্ন জাতের সামুদ্রিক মাছে মেশানো হচ্ছে কাপড়ে ব্যবহারের ক্ষতিকর রং। মূলত মাছ তাজা দেখাতে কাপড়ে ব্যবহারের রং পানিতে মিশিয়ে তার মধ্যে মাছ ভিজিয়ে রাখা হচ্ছিল। এমন চিত্র একুশে পত্রিকার ক্যামরায় ধরা পড়ে আনোয়ারা উপজেলা কালাবিবির দিঘীর মোড়ের মৎস আড়ৎগুলোর সামনে।

বুধবার (৩ মার্চ) দুপুরে আনোয়ারা উপজেলার কালাবিবির দিঘীর এবিসি নামের একটি মৎস্য আড়তের সামনে এই রং মেশানো হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, কাপড়ে ব্যবহৃত রং মেশানো পানিতে চুবিয়ে রাখা হচ্ছে বিভিন্ন প্রজাতির সামুদ্রিক মাছ। এছাড়া সাদা পাউডার জাতীয় কিছু মাছে মেশাতে দেখা যায়।

এ বিষয়ে জানতে এবিসি মৎস্য আড়তের মালিক মো. শাহেদ জানান, এটা আমার আড়তের না। এগুলো বাঁশখালীর জেলে। তো এরা আপনার আড়তের সামনে কেন রং মেশাচ্ছে এমন প্রশ্নে শাহেদ বলেন, ওরা আমার কাছ থেকে বরফ কিনে! তবে ওরা সব সময় মেশায় না, মাছ যদি একটু দূর্বল হয় মাঝে মধ্যে মেশায় আর কি। আমার কাছে মাছ নেই এইগুলো ওদের মাছ।

এ বিষয়ে সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. রাশিদুল হক একুশে পত্রিকাকে জানান, সামুদ্রিক মাছকে সতেজ দেখানোর জন্য কাপড়ে রং পানির সঙ্গে মিশিয়ে তা মাছে ব্যবহার করা আইনত অপরাধ এবং যা মানবদেহের জন্য অত্যান্ত ক্ষতিকর। আগামীকাল উপজেলা প্রশাসনকে সাথে নিয়ে অভিযান পরিচালনা করা হবে।