রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

হত্যাপ্রচেষ্টা মামলার আসামি ধরবে পুলিশ, তাতেই টাকা দাবি!

প্রকাশিতঃ ১৪ অগাস্ট ২০২১ | ১২:৫৬ অপরাহ্ন

একুশে প্রতিবেদক : চট্টগ্রাম নগরের খুলশী থানা পুলিশ হত্যা চেষ্টা মামলার আসামিকে ধরতে বাদির কাছে টাকা দাবির অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার ১০ দিন অতিবাহিত হলেও প্রথমে রক্তখেকো সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণে গড়িমসি, পরবর্তীতে অনুনয়-বিনয়ের পর মামলা নিলেও আসামি গ্রেফতার করতে দাবি করা হচ্ছে টাকা।

ভুক্তভোগী হানিফুল খোকনের অভিযোগ, তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে গত ৫ আগস্ট বেলা ১১টার দিকে টাইগারপাস ওয়াটারক্স কলোনি এলাকায় প্রতিবেশী হারুন তাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালান। গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয়রা তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসা শেষে বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) হারুন ও তার স্ত্রী জ্যোৎস্না আক্তারকে আসামি করে খুলশি থানায় মামলা দায়ের করেন হানিফুল।

কিন্তু তার (হানিফুল) অভিযোগ, আসামি হারুন এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরাফেরা করছেন। পুলিশ তাকে গ্রেফতারে গড়িমসি করছে। তাকে গ্রেফতারের জন্য বাদি অনুরোধ করলেও পুলিশ আমলে নিচ্ছে না। উল্টো থানা পুলিশ পরিচয় দিয়ে আসামিকে গ্রেফতারের জন্য হানিফুলের কাছে তিন হাজার টাকা দাবি করছেন। টাকা দাবির ভয়েস রেকর্ড একুশে পত্রিকার কাছে সংরক্ষিত আছে।

এদিকে হত্যা চেষ্টা মামলার আসামি হারুন গ্রেফতার না হওয়ায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন হানিফুল ও তার পরিবার। এজাহার অনুযায়ী, গত ৫ বাসার সামনে ময়লা ফেলেন আসামি হারুনের স্ত্রী। এর প্রতিবাদ করলে হানিফুলের উপর রান্না করা গরম ডাল ছুড়ে মারেন হারুন। এ নিয়ে বাকবিত-ার একপর্যায়ে হানিফুলের এক ভাগিনাকে নিজের ঘরে নিয়ে মারধর করে হারুন ও তার স্ত্রী। এসময় তাকে ছাড়িয়ে আনতে গেলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি হানিফুলের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করে হারুন। এসময় আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করে।

একইদিন সন্ধ্যায় হানিফুলের কাছ থেকে ঘটনার বিস্তারিত শুনে লিখিত অভিযোগ নেয় পুলিশ। কিন্তু নিয়মিত মামলা নেয়নি। পরে ওসি শাহীনুজ্জামান বিষয়টি অবগত হলে মামলা নথিভুক্ত করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। অবশেষে ঘটনার ছয়দিন পর হানিফুলকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে হারুন ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের হয়।

আসামিকে গ্রেফতার অভিযানে যেতে পুলিশের পরিচয় দিয়ে বাদির কাছে টাকা দাবি প্রসঙ্গে খুলশি থানার ওসি শাহীনুজ্জামান বলেন, ‘পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতে আসামি ধরতে বাদির কাছে যে ব্যক্তি টাকা দাবি করেছেন তাকে চিহ্নিত করতে হবে।’

এদিকে হানিফুল হত্যা চেষ্টা মামলার আসামি হারুন ও তার স্ত্রীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সুমন বড়ুয়া।

একুশে/এমআর/এটি