রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

`রক্তখেকো’ হারুন পুলিশের জালে

প্রকাশিতঃ ২৬ অগাস্ট ২০২১ | ৬:৫০ অপরাহ্ন

একুশে প্রতিবেদক : চট্টগ্রাম নগরের টাইগারপাস ওয়াটারক্স কলোনির ‘রক্তখেকো’ সেই ‘সন্ত্রাসী’ হারুনকে অবশেষে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। প্রতিবেশী যুবককে হত্যা প্রচেষ্টার অভিযোগে খুলশি থানায় মামলা দায়েরের ১৪ দিনের মাথায় হারুনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

এর আগে গত ১২ আগস্ট হারুন ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে হত্যাপ্রচেষ্টা অভিযোগে একটি মামলা করেন প্রতিবেশী হানিফুল খোকন৷ বিষয়টি নিশ্চিত করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই সুমন বড়ুয়া আজ বিকালে একুশে পত্রিকাকে বলেন, “হারুনকে আজ দুপুরে নগরের মোমিন রোড থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলা দায়েরের পর থেকে তাকে হন্যে হয়ে খুঁজছিলাম। আগামীকাল শুক্রবার তাকে আদালতে হাজির করব।”

এদিকে তার বিরুদ্ধে হানিফুলের দায়ের করা হত্যাপ্রচেষ্টা মামলার তদন্ত ভিন্নখাতে নিতে কৌশল অবলম্বন করেন হারুন। উল্টো ভাতিজা মো. ফরিদকে দিয়ে বাদি হানিফুল খোকন ও তার পরিবারকে হয়রানির উদ্দেশ্যে আদালতে ‘ফৌজদারি অভিযোগ’ দায়ের করান। গত ১৯ আগস্ট চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ অভিযোগ দেওয়া হয়। এতে হানিফুল খোকন ও তার স্ত্রী পারভীন আক্তার, ভাগিনা মো. জুয়েল, মো. রাসেলকে বিবাদী করা হয়েছে। আদালত অভিযোগ তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে খুলশি থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ওসি শাহীনুজ্জামান।

আদালতে ফরিদের দেয়া ফৌজদারি অভিযোগ মিথ্যা, কাল্পনিক বলে দাবি করে হানিফুল বলেন, “মূলত আমাকে হত্যা চেষ্টার মামলার তদন্ত ভিন্নখাতে নিতে ‘রক্তখেকো’ সেই সন্ত্রাসী হারুন তার ভাতিজা দিয়ে আদালতে অভিযোগ দিয়েছে।’

এর আগে হত্যাপ্রচেষ্টা মামলার প্রধান আসামি হারুনকে ধরতে পুলিশ পরিচয়ে বাদির কাছে টাকা দাবির অভিযোগ উঠে। এ নিয়ে গত ১৩ আগস্ট একুশে পত্রিকায় “হত্যা প্রচেষ্টা মামলার আসামি ধরবে পুলিশ, তাতেই টাকা দাবি” শীর্ষক একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদন প্রকাশের পর বিষয়টির তদন্ত শুরু করে সিএমপির অতিরিক্ত উপ কমিশনার (পশ্চিম) আবু বকর সিদ্দিক। পুলিশ পরিচয় দিয়ে বাদি হানিফুলের কাছে টাকা দাবিকারী অজ্ঞাতনামা ওই ব্যক্তি প্রতারক বলে শনাক্ত করা হয়৷

অভিযোগ ওঠে, হত্যাপ্রচেষ্টা মামলার প্রধান আসামি সন্ত্রাসী হারুনের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণে প্রথমে গড়িমসি, পরবর্তীতে অনুনয়-বিনয়ে ঘটনার এক সপ্তাহ পরে মামলা নেয় খুলশি থানা পুলিশ। এরপর আসামি গ্রেফতার করতে বাদির কাছে পুলিশ পরিচয়ে ‘আব্দুল মান্নান’ নামে এক ব্যক্তি তিন হাজার টাকা দাবি করে।

ভুক্তভোগী হানিফুল খোকনের অভিযোগ, তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে গত ৫ আগস্ট বেলা ১১টার দিকে টাইগারপাস ওয়াটারক্স কলোনি এলাকায় প্রতিবেশী হারুন তাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালান। গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয়রা তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসাশেষে গত ১২ আগস্ট হারুন ও তার স্ত্রী জ্যোৎস্না আক্তারকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন হানিফুল।

এজাহার অনুযায়ী, গত ৫ আগস্ট বেলা সাড়ে ১০টার দিকে তার বাসার সামনে ময়লা ফেলেন আসামি হারুনের স্ত্রী৷ প্রতিবাদ করলে হানিফুলের উপর রান্না করা গরম ডাল ছুড়ে মারেন হারুন। এক পর্যায়ে হানিফুলের এক ভাগিনাকে নিজের ঘরে নিয়ে মারধর করে হারুন ও তার স্ত্রী। এসময় তাকে ছাড়িয়ে আনতে গেলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি হানিফুলের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করে হারুন। এসময় আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করে।