বুলগেরিয়া থেকে এলো পৌনে ৩ লাখ অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকা


ঢাকা : অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার দুই লাখ ৭০ হাজার ডোজ করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা পাঠিয়েছে বুলগেরিয়া।

বুধবার টার্কিশ এয়ারলাইন্সের কার্গো ফ্লাইটে টিকাগুলো ঢাকায় পৌঁছেছে বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একজন প্রতিনিধি বলকান দেশটির উপহারের এসব টিকা গ্রহণ করেছেন বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ‘কোভিশিল্ড’ দিয়ে গত ৭ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে গণটিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছিল।

প্রতিষ্ঠানটির কাছ থেকে ৩ কোটি ডোজ টিকা কেনার চুক্তির পর দুই চালানে ৭০ লাখ ডোজ টিকা পাওয়া যায়। এছাড়া ভারত সরকারের উপহার হিসেবে আরও ৩২ লাখ ডোজ টিকা পায় বাংলাদেশ।

এরপর দেশটি রপ্তানি বন্ধ করে দিলে বাংলাদেশ বেকায়দায় পড়ে। মজুদ কমে আসায় টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া ২৫ এপ্রিল থেকে বন্ধ করে দিতে হয়। এক পর্যায়ে দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়াও বন্ধ করে দেওয়া হয়।

দ্বিতীয় দফায় গত ১৯ জুন থেকে টিকাদান কার্যক্রম আবার চালু হয় চীনের তৈরি সিনোফার্মের টিকা আসার পর।

তবে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার প্রথম ডোজ নেওয়া ১৫ লাখ ২১ হাজার ৯৪৭ জন দ্বিতীয় ডোজ থেকে বাদ পড়েছিলেন।

পরে কোভ্যাক্সের আওতায় জুলাইয়ের শেষ দিকে জাপান থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা আসা শুরু হওয়ার পর আগস্টের প্রথম সপ্তাহে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া শুরু হয়।

সে সময় কোভ্যাক্সের অধীনে জাপান পাঁচ চালানে ৩০ লাখ ৫৯ হাজার ২০০ ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা উপহার পাঠায়।

বুলগেরিয়ার উপহারসহ এ নিয়ে দেশে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ১ কোটি ৩৫ লাখ ২৯ হাজার ২০০ ডোজ টিকা এলো।