শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

মিয়ানমারে ফের সেনা-বিদ্রোহী সংঘর্ষ

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১, ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিয়ানমারে আবারও সেনাবাহিনী ও বিদ্রোহীদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়েছে। লড়াই তীব্র হতেই মানুষ ঘর ছেড়ে পালাতে শুরু করেছেন ভারত সীমান্তবর্তী থান্টলং শহরের বাসিন্দারা। তাদের অধিকাংশই ভারতে প্রবেশ করছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) জানিয়েছে, সেনা সাধারণ মানুষের বাড়িতে বোমা ফেলছে। তাই শহরের ১০ হাজার বাসিন্দার মধ্যে প্রায় সবাই নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে আশপাশের এলাকায় চলে গেছেন। অনেকে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে ঢুকেছেন বলে এক স্থানীয় নেতা জানিয়েছেন।

কিছুদিন ধরে এখানে বিদ্রোহীদের সঙ্গে সেনার সংঘর্ষ চলছে। প্রচুর বাড়িতে আগুন জ্বলছে। গত সপ্তাহান্তে অন্তত ২০টি বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।
স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, একটি বাড়ির আগুন নেভানোর চেষ্টা করায় এক খ্রিষ্টান যাজককে গুলি করে হত্যা করে সেনারা।

তবে সেনাবাহিনীর দাবি, তাদের ওপর শতাধিক ‘সন্ত্রাসী’ আক্রমণ করলে উভয়পক্ষের গোলাগুলির মধ্যে পড়ে ওই যাজক প্রাণ হারান।

সালাই থাং নামে স্থানীয় এক সম্প্রদায় নেতা জানিয়েছেন, গত কয়েক সপ্তাহে শহরটিতে সেনা-বিদ্রোহী সংঘর্ষে অন্তত চার বেসামরিক নাগরিক নিহত ও ১৫ জন আহত হয়েছেন। জান্তাবিরোধী গোষ্ঠী চিন ডিফেন্স ফোর্স জানিয়েছে, তাদের হামলায় অন্তত ৩০ সেনা প্রাণ হারিয়েছেন।

ভারতের মিজোরামের নাথিয়াল জেলার ডেপুটি কমিশনার জানিয়েছেন, গত দুই সপ্তাহে দুই হাজার নয় জন মিয়ানমার থেকে পালিয়ে ভারতে এসেছেন। তাদের আশঙ্কা ছিল, না পালালে সেনার হাতে মরতে হবে। তাদের কয়েকটি শিবিরে রাখা হয়েছে।

১ ফেব্রুয়ারি অং সান সু চি’র নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে সেনা অভ্যুত্থান হয় মিয়ানমারে। মার্চ-এপ্রিল মাসে জান্তা বিরোধী মিছিল শুরু হয় দেশটিতে। মিছিল দমাতে গুলি চালায় সেনাবাহিনী। গুলিতে কয়েকদিনে অন্তত ৬০০ জনের মৃত্যুর খবর জানায় মানবাধিকার সংস্থাগুলো। মাঝে এমন সংঘর্ষ বন্ধ থাকলেও এখন আবারও শুরু হয়েছে।