রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

দুই লাখ টাকা চুরি করে প্রেমিক গ্রেফতার, তবুও হিজড়া শাহীনুরের বিশ্বাস প্রেমে

প্রকাশিতঃ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪:৪৯ অপরাহ্ন

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামে এক হিজড়ার দুই লক্ষ টাকা চুরির ঘটনায় দায়ের করা মামলায় হিজড়ার প্রেমিক মাে. বুলবুল সুমনকে (৩৪) গ্রেপ্তার করেছে খুলশী থানা পুলিশ। আসামি বুলবুল নগরের ওয়ালের্স এলাকার বাসিন্দা, পেশায় রাজমিস্ত্রী।

৯ বছরের প্রেমের সম্পর্কের পর প্রেমিকের চুরির এমন ঘটনা বিশ্বাসই করতে পারছেন না শাহীনুর হিজড়া (৫০)। তার আস্থা, বিশ্বাস এখনো প্রেমে। তার সেই প্রেমের মানুষ চোর হতে পারে না।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১২টায় নগরের সেগুনবাগান এলাকা থেকে চুরির দায়ে প্রেমিক বুলবুলকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এর আগে বুধবার সকাল ১০টায় নগরের বাটালীহিল মতিঝর্ণার নূর মোহাম্মদ কলোনির ভাড়া বাসার দরজা বন্ধ করে বাজার করতে বাইরে যান শাহীনুর হিজড়া। দেড় ঘণ্টা পর বাসায় ফিরে বাসার দরজা তালাভাঙা অবস্থায় দেখতে পান। পরে দেখা যায়, ট্রাঙ্কে থাকা নগদ ২ লাখ টাকা চুরি হয়ে গেছে। এ ঘটনায় খুলশী থানায় অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা করেন শাহীনুর হিজড়া।

পরবর্তীতে খুলশী থানার এসআই খাজা এনাম এলাহী গােপন সংবাদের ভিত্তিতে ফোর্সসহ সেগুন বাগান এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে বুলবুলকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হন। তার কাছ থেকে একটি গামছায় পেঁচানো অবস্থায় নগদ ২ লাখ টাকা ও কালাে রংয়ের একটি ব্যাগ উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ফাড়ি ইনচার্জ এসআই খাজা এনাম এলাহী একুশে পত্রিকাকে বলেন, শাহীনুর হিজড়া প্রথমে আমাদের কাছে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য গোপন করেন। তিনি আমাদের কাছে অজ্ঞাতনামা চোর কৌশলে বাসার ট্রাংকের তালা ভেঙে ২ লাখ টাকা চুরির কথা জানিয়ে অভিযোগ করেন। এসময় প্রেমিকের কথা গোপন করেন। পরবর্তীতে আমরা শাহীনুর হিজড়ার বাসার আশপাশের মানুষের সাথে কথা বলে তার প্রেমিকের বিষয়টি জানতে পারি।

এসআই খাজা এনাম এলাহী বলেন, শাহীনুর এবং বুলবুল প্রায়সময়ই শাহীনুরের বাসায় রাত্রিযাপনের বিষয়টি প্রতিবেশীদের কাছে আমরা জানতে পারি। এরপরই ঘটনার মোড় ঘুরে যায়। ফলে কৌশলে আমাদের তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করতে থাকি। কয়েক ঘণ্টা অভিযানের পর আমরা আসামীকে টাকাসহ গ্রেপ্তার করি। জিজ্ঞাসাবাদে বুলবুল চুরির বিষয়টি স্বীকার করেছে।

তিনি বলেন, শাহীনুর বিশ্বাসই করতে পারেননি প্রেমিকই তার টাকা চুরি করবে। প্রেমিকের এমন কাণ্ডে হতবাক শাহীনুর হিজড়া। আমরা জেনেছি, বুলবুল একজন প্রতারক। চট্টগ্রামে পারভীন আকতার নামে এক বিহারি নারীকে বিয়ে করার আগেও রাজশাহী বাঘমারা থানার গােবিন্দপাড়া ইউনিয়নে নিজ গ্রামের এক নারীকে বিয়ে করেছে। ওই সংসারে তার এক ছেলে, এক মেয়ে আছে।

এদিকে বুলবুল পুলিশকে জানিয়েছে, ২০১৩ সালে শাহীনুর হিজড়ার সাথে তার পরিচয় হয়। এরপর তারা ৪ বছর একসাথে ছিল। শাহীনুর প্রেমিক বুলবুলকে তার চাহিদামত টাকা দিয়ে খুশি করতো। কিন্তু একপর্যায়ে ল বুলবুল পারভীন আকতার নামে আরেক নারীর সাথে সম্পর্কে জড়ায়। শাহীনুর হিজড়া বিষয়টি জানতে পেরে নিজের বাসায় ডেকে তার (বুলবুল) মুখে ব্লেড দিয়ে আঘাত করে। এ ঘটনার পর শাহীনুরের সঙ্গ ছেড়ে পারভীনকে বিয়ে করে বুলবুল। কিন্তু এর কয়েকবছর পর আবারও শাহীনুর হিজড়ার সাথে যোগাযোগ করে পুনরায় সম্পর্কে জড়ায়।

বুলবুলের ভাষ্য মতে, স্ত্রীকে কাজের কথা বলে সে প্রায়সময় শাহীনুর হিজড়ার বাসায় কয়েকদিনের জন্য চলে যেতো, একসাথে রাত্রিযাপন করতো। সর্বশেষ গত ১২ সেপ্টেম্বর বুলবুল স্ত্রীকে বান্দরবানে কাজে যাওয়ার কথা জানিয়ে শাহীনুরের বাসায় চলে যায় এবং একসাথে থাকা শুরু করে। কয়েকদিন আগে শাহীনুর প্রেমিক বুলবুলকে বেশকিছু টাকা দিয়ে সেগুলো গুনতে সাহায্য করতে বলে। বুলবুল তাকে ২ লাখ টাকা গুণে দিলে শাহীনুর হিজড়া সেগুলো একটি ট্রাংকে তালাবদ্ধ করে রাখে। সেসময়ই টাকাগুলো আত্মসাতের ফন্দি আঁটে বুলবুল।

আসামী বুলবুল জানায়, গত বুধবার সকালে শাহীনুর হিজড়া বাজার করার উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হলে তালা ভেঙে টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। এরপর সেই টাকা থেকে নতুন ব্রিজ এলাকা গিয়ে জামাকাপড় কিনে বিভিন্নস্থানে ঘোরাফেরা করে রাতে সেগুনবাগান এলাকায় বাচ্চুর রিকশা গ্যারেজে আত্মগোপন করে।

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহিনুজ্জামান একুশে পত্রিকাকে বলেন, ‘শাহীনুর হিজড়ার অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা অভিযান পরিচালনা করে বুলবুল নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছি। জানতে পেরেছি বুলবুল শাহীনুর হিজড়ার প্রেমিক। তার কাছ থেকে চুরি যাওয়া ২ লাখ টাকা উদ্ধার করতে পেরেছি। তাকে আদালতে প্রেরণের কার্যক্রম চলছে। আদালতের নির্দেশনার পর আমরা পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’