বিদেশে টেন্ডুলকারের গোপন বিনিয়োগ!


খেলাধুলা ডেস্ক : বিদেশে গোপনে অর্থ বিনিয়োগ করেছেন ভারতের মাস্টার ব্লাস্টার ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকার। আইসিআইজে নামে আন্তর্জাতিক অনুসন্ধানী একটি সংস্থা ‘প্যান্ডোরা পেপারস’ নামে একটি নথিতে এমন তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

শুধমাত্র টেন্ডুলকারই নন, এ গোপন নথিতে আরও অনেক বিখ্যাত ব্যক্তির নাম আছে। বিভিন্ন দেশের ৩৫ জন বর্তমান ও সাবেক রাজনৈতিক নেতা এবং ৩শর বেশি প্রভাবশালী সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার নাম রয়েছে। উল্লেখযোগ্যদের মধ্যে আছেন- পপ তারকা শাকিরা, সুপার মডেল ক্লদিয়া শিফার, ইতালির কুখ্যাত মাফিয়া ডন রাফায়েল আমাতো। রাফায়েল কমপক্ষে এক ডজন খুনের সাথে জড়িত।

প্যান্ডোরা পেপারসের তদন্তে বেরিয়ে এসেছে, বিখ্যাত ব্যক্তিদের বিদেশি প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ, ছদ্মবেশী ব্যাংক অ্যাকাউন্টসহ বিভিন্ন গোপন আর্থিক লেনদেন। এছাড়া বিদেশে নিজেদের নাম পরিচয় গোপন করে ব্যক্তিগত উড়োজাহাজ, বাড়ি, ইয়াট ইত্যাদি বলে তথ্য আছে। এমনকি এতে বিখ্যাত শিল্পীদের (পিকাসো, বাঙ্কসি) চিত্রকর্মের গোপন মালিকদের তথ্যও আছে।

নথিতে টেন্ডুলকারের সাথে তার স্ত্রী অঞ্জলি এবং শ্বশুর আনন্দ মেহতার নামও আছে। ক্রিকেট থেকে অবসেরর পর ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ড নামে একটি প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করেছিলেন টেন্ডুলকার। ২০১৬ সালে সেই প্রতিষ্ঠানের বিনিয়োগ নগদীকরণ করার সময় টেন্ডুলকারের ৯টি, অঞ্জলির ১৪টি ও মেহতার ৫টি শেয়ার ছিল।

যেখানে শচিনের শেয়ারের মূল্য ৮ লাখ ৫৬ হাজার ৭০২, অঞ্জলির ১৩ লাখ ৭৫ হাজার ৭১৪ ও মেহতার শেয়ারের মূল্য ৫ লাখ ৫৩ হাজার ৮২ মার্কিন ডলার। তবে ২০১৬ সালে সেই বিনিয়োগের টাকা তুলে নেয়া হয়।

নথিতে টেন্ডুলকারের নাম আসায় বিস্মিত প্রকাশ করেছেন তার আইনজীবী। তিনি জানান, ‘টেন্ডুলকারের বিদেশে বিনিয়োগ আছে। তবে সব বিনিয়োগই বৈধ ও আইনসিদ্ধ। যথাযথ কর্তৃপক্ষকে জানিয়েই সেই বিনিয়োগ করা হয়েছে। আয়কর বিভাগের কাছে প্রতিটির হিসাব রয়েছে।’