বুধবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২২, ৬ মাঘ ১৪২৮

‘ওমিক্রন’ বিশ্বকে অত্যন্ত উচ্চ ঝুঁকিতে রেখেছে : ডব্লিউএইচও

প্রকাশিতঃ সোমবার, নভেম্বর ২৯, ২০২১, ৬:০০ অপরাহ্ণ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) হুঁশিয়ার করে বলেছে, করোনার নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ বিশ্বকে অত্যন্ত উচ্চ ঝুঁকিতে রেখেছে। আজ সোমবার ওমিক্রন নিয়ে প্রকাশিত এক সংক্ষিপ্ত নিবন্ধে ডব্লিউএইচও এ সতর্কবার্তা দিয়েছে। খবর এএফপির।

তবে এর আগে গতকাল রোববার সংস্থার বিবৃতিতে ওমিক্রন মোকাবিলায় ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি না করে বিজ্ঞানসম্মত উপায় মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। শনাক্ত হওয়া নতুন ধরনটিকে ‘উদ্বেগজনক’ বলে আখ্যায়িত করেছে সংস্থাটি।

সম্প্রতি আফ্রিকা অঞ্চলে শনাক্ত হয় করোনার নতুন ধরন বি.১.১.৫২৯। গত শুক্রবার ধরনটিকে ‘উদ্বেগজনক’ বলে ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও। এর নাম দেওয়া হয়েছে ওমিক্রন। ধারণা করা হচ্ছে, ডেলটাসহ করোনার আগের সব ধরনের চেয়ে এটি অনেক বেশি সংক্রামক। ডব্লিউএইচওর আশঙ্কা, নতুন এ ধরন বিশ্বের জন্য বড় ঝুঁকি তৈরি করতে পারে।

আজ সংস্থার সংক্ষিপ্ত নিবন্ধে বলা হয়, ওমিক্রনের কারণে যদি কোভিড-১৯–এর আরেকটি বড় ঢেউ আসে, তাহলে তার পরিণাম মারাত্মক হবে।

তবে ওমিক্রন ঠিক কতটা সংক্রামক বা কতটা বিপজ্জনক, তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে উল্লেখ করেছে ডব্লিউএইচও। এখন পর্যন্ত ওমিক্রন ধরনে আক্রান্ত হয়ে কারোর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি বলেও উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে।

ডব্লিউএইচও বলছে, ওমিক্রন নিয়ে গবেষণা শেষ করতে কয়েক সপ্তাহ লেগে যেতে পারে। নতুন এ ধরনটি কতটা সংক্রামক, কতটা মারাত্মক কিংবা এ ধরনটির বিরুদ্ধে এখনকার কোভিড টিকা, পরীক্ষার পদ্ধতি, চিকিৎসার পদ্ধতি—কতটা কার্যকর, তা নিয়ে গবেষণা চলছে।

সংস্থার এক বিবৃতিতে বলা হয় যে আলামতগুলো উপস্থাপিত হয়েছে, তার ভিত্তিতে বলা যায় কোভিড-১৯ রোগতাত্ত্বিক গবেষণায় উল্লেখজনক পরিবর্তন আনতে হবে।