বুধবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২২, ৬ মাঘ ১৪২৮

খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেওয়ার অনুমতি দাবি চবির বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের

প্রকাশিতঃ সোমবার, নভেম্বর ২৯, ২০২১, ১০:৫০ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম : বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে বিদেশে নেওয়ার অনুমতি দিতে সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপি-সমর্থক শিক্ষকদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম।

আজ সোমবার ফোরামের এক বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, সরকারের হীন মানসিকতা ও রাজনৈতিক দুরভিসন্ধি চরিতার্থ করার জন্য দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার পরও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে না দিয়ে তাঁকে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে।

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পরিপাকতন্ত্রে তিনবার রক্তক্ষরণসহ শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটায় বিবৃতিতে গভীর উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা প্রকাশ করে বলা হয়, বেগম জিয়া এদেশে গণতন্ত্র পূনঃপ্রবর্তনে গুরুত্বপূর্ণ ও আপোষমহীন ভূমিকা পালন করেন। বাংলাদেশের সামগ্রিক উন্নয়নে তাঁর অবদান অপরিসীম। অথচ আমরা বেদনাহত হৃদয়ে লক্ষ করছি একজন নাগরিকের মৌলিক অধিকার পছন্দমতো চিকিৎসা নেয়ার অধিকার থেকে তিনি ক্রমাগতভাবে বঞ্চিত। মেডিকেল বোর্ডের সুপারিশ ও পরিবারের আবেদন সত্ত্বেও সরকার তার রাজনৈতিক সংকীর্ণ মানসিকতার কারণে এ ব্যাপারে কোনো কর্ণপাত করছে না।

বিবৃতিতে বলা হয়, গত তিন বছরে সরকারের নিষ্ঠুরতার শিকার হয়ে এই মহিয়শী নারী সুচিকিৎসার অভাবে এখন মৃত্যু ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন। এমতাবস্থায় দেশের সচেতন নাগরিকদের পক্ষ থেকে আমাদের দাবি হচ্ছে জরুরিভিত্তিতে বেগম জিয়ার মুক্তির ব্যবস্থা গ্রহণপূর্বক বিদেশে সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা হোক। অন্যথায় প্রয়োজনীয় চিকিৎসার অভাবে বেগম খালেদা জিয়ার কিছু হলে তার দায় দায়িত্ব সরকারের বর্তমান নীতিনির্ধারকদের বহন করতে হবে।

বিবৃতিদাতা শিক্ষক নেতৃবৃন্দ হচ্ছেন- চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের সভাপতি প্রফেসর ড. প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আল-আমীন, সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর এস এম. নছরুল কদির, ড. মো. শফিকুল ইসলাম, ড. মোহাম্মদ আল-ফোরকান, ড. মোহাম্মদ তৈয়ব চৌধুরী, মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান চৌধুরী, ড. মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন, ড. মোঃ আব্দুল মান্নান, ড. মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান, আবু নছর মুহাম্মদ আবদুল মাবুদ, মোহাম্মদ মঞ্জুর মোর্শেদ, মোহাম্মদ মেজবাউল আলম, এ জি এম নিয়াজ উদ্দিন, ড. মু. জাফর উল্লাহ্ তালুকদার, ড. শেখ বখতিয়ার উদ্দিন, মোহাম্মদ জমালুল আকবর চৌধুরী, ড. এ, কে. এম. মাহফুজুল হক, ড. জয়নাল আবেদীন সিদ্দিকী, ড. মোহাম্মদ আশরাফুল আজম খান, ড. মোঃ শাহাদাত হোসেন, ড. জহুরুল আলম, ড. মোহাম্মদ সামছুদ্দোহা, ড. চৌধুরী মোহাম্মদ মনিরুল হাসান, ড. মো: আমান উল্লাহ, ড. মোঃ সিরাজ উদ্দীন, মোহাম্মদ আলম চৌধুরী, মুহাম্মদ যাকারিয়া ও ড. আনোয়ার হোসেন।