‘আলোকিত সমাজ গড়তে সহশিক্ষা কার্যক্রমের প্রসার ঘটাতে হবে’


ঢাকা : আলোকিত সমাজ গড়তে সহশিক্ষা কার্যক্রমের প্রসার ঘটাতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

আজ সোমবার (১০ জানুয়ারি) ঢাকায় মিন্টু রোডস্থ সরকারি বাসভবনে রাঙ্গুনিয়া স্টুডেন্টস ফোরাম, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক প্রকাশিত ‘কর্ণফুলী’ ম্যাগাজিনের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ছাত্র-ছাত্রীদের মেধা ও মননের পরিপূর্ণ বিকাশে একাডেমিক কার্যক্রমের পাশাপাশি বিভিন্ন সহশিক্ষা কার্যক্রমসহ সুকুমার বৃত্তি চর্চার কাজে সবার সম্পৃক্ত হওয়া প্রয়োজন। সুপ্ত প্রতিভার বিকাশই হচ্ছে শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য। সর্বোপরি সমাজের একজন উৎপাদনশীল সভ্য হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠার জন্য যেসব যোগ্যতা ও দক্ষতা আবশ্যক সেসব অর্জনে শিক্ষার পাশাপাশি সহশিক্ষা কার্যক্রমের ভূমিকাও অপরিহার্য।

ড. হাছান মাহমুদ আরও বলেন, ছাত্রছাত্রীদের মূল কাজ হচ্ছে তাদের সুন্দর ভবিষ্যত বিনির্মাণে পড়ালেখায় মনোযোগী হওয়া। পাশাপাশি সুন্দর মনের পরিচ্ছন্ন মানুষ হয়ে গড়ে ওঠার জন্য সৃষ্টিশীল, রুচিশীল ও মননধর্মী উপযোগী কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করা।

তিনি রাঙ্গুনিয়া স্টুডেন্টস ফোরাম কর্তৃক প্রকাশিত স্যুভেনিয়র ‘কর্ণফুলী’র প্রশংসা করে বলেন, এ ধরনের প্রকাশনার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের আত্মোন্নয়ন ও নেতৃত্বগুণ বৃদ্ধি পায়। মূল্যবোধের অবক্ষয়রোধ এবং সুকুমার বৃত্তির বিকাশে শিল্প-সাহিত্যচর্চা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নবতর চিন্তাচেতনা ও মূল্যবোধের মাধ্যমেই আলোকিত মানুষ সৃষ্টি সম্ভব।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, নতুন প্রজন্মের অনেকে যেখানে প্রযুক্তির অপব্যবহারে অপসংস্কৃতির দিকে ধাবিত হচ্ছে, সেখানে রাঙ্গুনিয়া স্টুডেন্টস ফোরামের সহশিক্ষা কার্যক্রমের অংশ হিসেবে স্যুভেনিয়র প্রকাশনার উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার, যা অন্যদেরও সুস্থ ধারার সংস্কৃতি চর্চায় উদ্বুদ্ধ করবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গুনিয়া স্টুডেন্টস ফোরাম, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি মো. ইকবাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মিনহাজুর রহমান শিহাব ও অর্থ সম্পাদক মেহেরাজ হোসেন ইমরান প্রমুখ।