মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

রাঙ্গুনিয়ায় ‘প্রেমিকের’ এসিডে দগ্ধ তরুণীর মৃত্যু

প্রকাশিতঃ Saturday, May 14, 2022, 8:38 pm


রাঙ্গুনিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় কথিত প্রেমিকের ছোড়া এসিডে দগ্ধ হওয়ার ৯ দিন পর ইয়াছমিন আকতার (২০) নামে এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে।

আজ শনিবার (১৪ মে) বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

মৃত ইয়াছমিন আকতার রাঙ্গুনিয়া উপজেলার বেতাগী ইউনিয়নের ডিঙ্গললোঙ্গো এলাকার আবুল বাশারের মেয়ে। ইয়াছমিন তার পাঁচ বোন ও দুই ভাইয়ের মধ্যে সবার ছোট।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বেতাগী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সফিউল আলম একুশে পত্রিকাকে বলেন, ‘সন্ধ্যার দিকে ইয়াছমিনের ভাই মৃত্যুর বিষয়টি আমাকে জানিয়েছে। পরবর্তীতে আমি বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করি।’

এর আগে গত ৪ মে দিবাগত রাত ২ টার দিকে ইয়াছমিনের সাথে দেখা করতে যান কথিত প্রেমিক নুরুল আজিম। জানালা দিয়ে কথা বলার সময় ইয়াছমিন কিছু বুঝে ওঠার আগেই আজিম এসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়।

ঘটনার পর দগ্ধ ইয়াছমিনকে প্রথমে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওপরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। দুইদিন পর উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় নেয়া হয়।

জানা যায়, ইয়াছমিন আকতারের সঙ্গে মো. নুরুল আজিম নামের এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এক পর্যায়ে ইয়াছমিন জানতে পারে আজিম বিবাহিত। তখন ইয়াছমিন সম্পর্ক থেকে সরে আসতে চাইলে ইয়াছমিনকে এসিড নিক্ষেপ করে আজিম।

নুরুল আজিম (৩০) কাপ্তাই উপজেলার চন্দ্রঘোনা থানার খন্তকাটা এলাকার রুহুল আমিনের ছেলে। তিনি পেশায় সিএনজি অটোরিকশার চালক।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে গত ৫ মে ভোরে অভিযুক্ত মো. নুরুল আজিমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে ইয়াছমিনের বড় ভাই আবু তাহের বাদী হয়ে রাঙ্গুনিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে ইয়াছমিন মারা যাওয়ায় মামলা‌টি এখন হত্যা মামলায় রুপান্তর হ‌বে বলে জানিয়েছেন রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি মাহাবুব মিল্কী।