শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

বিশ্বজুড়ে একদিনে ২০২১ জনের মৃত্যু

প্রকাশিতঃ ৪ অগাস্ট ২০২২ | ৯:৪৯ পূর্বাহ্ন


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে দু’বছরেরও বেশি সময় ধরে লড়ছে বিশ্ব। এ ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে লাখ লাখ মানুষ মারা গেছেন। কোটি কোটি মানুষ এখনও এ মহামারির কারণে বিপর্যস্ত। বেশ কিছু দিন ধরে করোনার প্রভাব কমা শুরু করলেও হঠাৎ করেই আবার এ মহামারির সংক্রমণ বেড়েছে। বিশেষত পূর্ব এশিয়ার একাধিক দেশে বেড়েছে শনাক্ত ও মৃতের সংখ্যা।

পূর্ব এশিয়ার দেশ জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়া গত ২৪ ঘণ্টায় লাখের ওপর নতুন সংক্রমণের মুখোমুখি হয়েছে। সংক্রমণ আশংকাজনক হারে বাড়লেরও দেশ দুটিতে স্বাভাবিক রয়েছে মৃত্যু হার।

গত ২৪ ঘণ্টায় জাপানে ১ লাখ ৬৭ হাজার ৬৭৮ জন নতুন করে এ ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে, মৃত্যু ঘটেছে ১০৯ জনের। মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ কেটি ২৯ লাখ ১৭ হাজার ৫০০ জন।

পূর্ব এশিয়ার আরেক দেশ দক্ষিণ কোরিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১ লাখ ১১ হাজার ৭০০ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। মহামারিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন ১৬ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৯৯ লাখ ৩২ হাজার ৪৩৯ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন তথ্য প্রকাশ করেছে ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস। ওই সকল তথ্যানুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণে ২ হাজার ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে এ ভাইরাসে সংক্রমিত বলে শনাক্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৮২ হাজার ৩৭৪ জন। এছাড়া এ মহামারি থেকে সুস্থ হয়েছেন ১১ লাখ ৫৯ হাজার ৩৩১ জন।

এর ফলে বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণে মৃতের মোট সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৪ লাখ ২৪ হাজার ৩৯৩ জনে। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৮ কোটি ৪১ লাখ ৫৬ হাজার ৯২০ জনে। এছাড়া করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৫৫ কোটি ৪৫ লাখ ৮৭ হাজার ৪৭৫ জন।

মহামারি শুরুর প্রায় এক বছর পর টিকা আবিষ্কার করতে সক্ষম হন বিজ্ঞানীরা। তারপর থেকে করোনার ঢেউ অনেকটা কমে আসে। বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ করোনা টিকার বুস্টার ডোজের ওপর জোর দিচ্ছে। করোনার প্রকোপ থেকে অনেকটাই স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেছে বিশ্ব। এখন পর্যন্ত বিশ্বের যেসব দেশে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ছিল সবই প্রায় তুলে নেয়া হয়েছে।