শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

বাঁশখালীর গণ্ডামারা— ভোটার হতে গেলেই ৫০০ টাকা দিচ্ছেন চেয়ারম্যান!

প্রকাশিতঃ ৬ অগাস্ট ২০২২ | ২:৩৩ অপরাহ্ন


বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : নতুন ভোটার হতে গেলেই ৫০০ টাকা দিচ্ছেন বাঁশখালীর গণ্ডামারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লেয়াকত আলী। এ নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা হলেও চেয়ারম্যানের দাবি, তরুণ ভোটারদের ‘ভালোবাসার উপহার’ দিচ্ছেন তিনি।

জানা যায়, বাঁশখালীতে গত ১ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে ভোটার হালনাগাদ কার্যক্রম। নতুন ভোটার হতে আগ্রহীদের কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে নিজের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে উপহার হিসেবে প্রতিজনকে ৫০০ টাকা করে দিচ্ছেন লেয়াকত আলী।

শনিবার (৬ আগস্ট) দুপুরে সরেজমিন দেখা যায়, গণ্ডামারা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের আনোয়ারা বেগম স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে নতুন ভোটার হতে ইচ্ছুক ৫ শতাধিক তরুণ-তরুণী ভিড়। সেখানে চেয়ার-টেবিল নিয়ে কাগজপত্রে স্বাক্ষর করার জন্য বসে আছেন লেয়াকত আলী। নতুন ভোটাররা ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ভোটার হালনাগাদ কার্যক্রমে অংশ নিচ্ছেন।

এদিকে ভোটার হতে ইচ্ছুক তরুণসহ অনেকেই চেয়ারম্যান লেয়াকত আলীর এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

পূর্ব বড়ঘোনা থেকে ভোটার হতে আসা ইকবাল হোসেন একুশে পত্রিকাকে বলেন, ‘ভোটার হালনাগাদ কার্যক্রমে অংশ নিতে আসলাম। সব কাগজপত্র নির্ভুলভাবে উপস্থাপন করায় চেয়ারম্যান মহোদয় উপহার হিসেবে ৫০০ টাকা প্রদান করেছেন। অথচ অন্য ইউনিয়নে ভোটার হতে চাইলে উল্টো ইউনিয়ন পরিষদে ঘুষ দিতে হয় বলে জানি।’

তবে নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ করে স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, ‘ভোটার হওয়ার আগেই ভোট কেনার অগ্রিম টাকা দিচ্ছেন চেয়ারম্যান। যারা টাকা নিচ্ছেন, তারা এই টাকা হালাল করার জন্য চেয়ারম্যানকে ভোট দিতে চাইবেন।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে গণ্ডামারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লেয়াকত আলী একুশে পত্রিকাকে বলেন, ‘ভোটার হতে আগ্রহীদেরকে ভালোবাসার উপহার হিসেবে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৫০০ টাকা করে দিচ্ছি। এর ফলে আমার ইউনিয়নের তরুণ-তরুণীরা ভোটার হালনাগাদ কার্যক্রমে অংশ নিতে উৎসাহিত হবে। এরা দ্রুততম সময়ে সব কাগজপত্র এনে দিচ্ছে। তাই তাদেরকে পুরস্কার দিচ্ছি।’

উল্লেখ্য, সদ্য সমাপ্ত ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন লেয়াকত আলী।