ফাইনালে ভারতকে ব্যাটিংয়ে পাঠাল অস্ট্রেলিয়া


খেলাধুলা ডেস্ক : দেড়মাসের বিশ্বকাপ কর্মযজ্ঞ একেবারে শেষপ্রান্তে। ত্রয়োদশ বিশ্বকাপের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি স্বাগতিক ভারত ও অস্ট্রেলিয়া। ষষ্ঠ বিশ্বকাপ জেতার সুযোগ অস্ট্রেলিয়ার আর দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারতের সামনে এক যুগের শিরোপাখরা কাটানোর মহামঞ্চ।

অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে বিশ্বকাপ আসর শুরু করা রোহিত শর্মার দল শেষটা তাদের হারিয়েই করতে চায়। তবে আগের হার থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক প্যাট কামিন্স। ফাইনালের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে টস জিতে স্বাগতিকদের ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন অজি অধিনায়ক প্যাট কামিন্স। অবশ্য ভারত অধিনায়ক বলেছেন, তিনি জিতলে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্তই নিতেন। আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বেলা আড়াইটায়।

ফাইনালের মহারণে দুই দলই খেলতে নামছে অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে। চলতি বিশ্বকাপে এখনও হারেনি স্বাগতিক ভারত। অন্যদিকে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই ভারতের বিপক্ষে হার দিয়ে বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করেছিল অস্ট্রেলিয়া। পরের ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও হেরেছিল অজি বাহিনী। তবে এই দুই হারের পরে ঘুরে দাঁড়ায় ৫ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। টানা ৮ জয়ে এখন শিরোপা জয়ের জন্য মুখিয়ে রয়েছে তারা।

এখন পর্যন্ত ওয়ানডে ফরম্যাটে ১৫০টি ম্যাচ খেলেছে দুই দল। যার শুরুটা হয়েছিল ১৯৮০ সালে। জয়ের পাল্লাটা অজিদের দিকে ভারী। ভারতের ৫৭ জয়ের বিপরীতে অস্ট্রেলিয়ার রয়েছে ৮৩ জয়। আর ১০টি ম্যাচ ফল ছাড়াই শেষ হয়েছে। যদিও সবশেষ পাঁচ দেখায় এগিয়ে রয়েছে ভারত। রোহিত শর্মাদের ৩ জয়ের বিপরীতে প্যাট কামিন্স বাহিনীর জয় রয়েছে ২টিতে।

ভারতের মাঠে মুখোমুখি লড়াইয়ে দুই দলই সমানে সমান। ৭১ ম্যাচের মধ্যে দুই দলই জিতেছে ৩৩টি করে ম্যাচ। এছাড়া ওয়ানডে বিশ্বকাপে ভারত-অস্ট্রেলিয়া মোট ১৩ বার মুখোমুখি হয়েছে। যেখানে ভারত ৫ বার এবং ৮ ম্যাচে জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। পরিসংখ্যানের চেয়েও যে বিষয়টা ভারতের জন্য দুশ্চিন্তার তা হচ্ছে– গত ১০ বছর ধরে তারা কোন আইসিসি ট্রফি জিতেনি। সর্বশেষ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জিতেছিল ২০১৩ সালে।

ঘরের মাঠে শেষবার তারা বিশ্বকাপ জিতেছিল ২০১১ সালে। এর ভেতর অবশ্য রোহিত-কোহলিরা দুবার আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলেও শিরোপা হাতছাড়া করেছে। এবার তারা সেই ট্রফিখরা কাটাতে পারে কি না— তা জানতে আর অল্প সময়েরই অপেক্ষা!

ভারতের একাদশ : রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), শুভমান গিল, বিরাট কোহলি, বিরাট কোহলি, শ্রেয়াস আইয়ার, লোকেশ রাহুল (উইকেটরক্ষক), সূর্যকুমার যাদব, রবীন্দ্র জাদেজা, কুলদীপ যাদব, জাসপ্রিত বুমরাহ, মোহাম্মদ শামি ও মোহাম্মদ সিরাজ।

অস্ট্রেলিয়ার একাদশ : প্যাট কামিন্স (অধিনায়ক), ডেভিড ওয়ার্নার, ট্রাভিস হেড, মিচেল মার্শ, স্টিভেন স্মিথ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মারনাস লাবুশেন, জশ ইংলিস (উইকেটকিপার), অ্যাডাম জ্যাম্পা, মিচেল স্টার্ক ও জশ হ্যাজলউড।