মনোনয়নপত্র জমা দিলেন আ.লীগ নেতা ফরিদ মাহমুদ


চট্টগ্রাম : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য দলীয় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন নগর আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ মাহমুদ। চট্টগ্রাম-১০ (ডবলমুরিং, পাহাড়তলী ও হালিশহর) আসনের জন্য মনোনয়ন ফরম কিনেছিলেন তিনি।

সোমবার (২০ নভেম্বর) দুপুরের দিকে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তিনি মনোনয়নপত্র জমা দেন। তিনি একই আসন থেকে ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও গত উপ-নির্বাচনেও মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন।

মনোনয়ন প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ মাহমুদ বলেন, ‘আমি গতবারও এই আসন থেকে জাতীয় এবং উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন চেয়েছিলাম। আমি ছাত্রজীবন থেকেই এই আসনে কাজ করে আসছি। এরাশাদবিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে সকল আন্দোলন-সংগ্রামে আমি ছিলাম। কোনো গ্যাপ না দিয়ে আন্দোলন-সংগ্রামে সার্বক্ষণিক সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছি। পাশাপাশি ব্যক্তি উদ্যোগে সামাজিক কাজ করে সংগঠনের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার চেষ্টা করেছি। তাই আমি সংগঠনের কাছে মনোনয়নের আবেদন করেছি। সংগঠন যদি সেটা বিবেচনা করে আমাকে যোগ্য মনে করে তাহলে আরও যাতে সংগঠনের ইমেজ ভালো হয় সেভাবে কাজ করবো।’

বিএনপির দূর্গ খ্যাত ডবলমুরিং-পাহাড়তলী এলাকায় দলের আন্দোলন-সংগ্রামে সামনের সারিতে নেতৃত্ব দেওয়া বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান ফরিদ মাহমুদ ১৯৮৬ সালে স্কুলে পড়া অবস্থায় ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হন। পরবর্তীতে তিনি লাল খান বাজার ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি মনোনীত হন। এরপর পর্যায়ক্রমে নগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও যুগ্ম আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি নগর আওয়ামী লীগের সদস্য পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে চট্টগ্রাম মহানগরে সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া ও জনকল্যাণমূলক কর্মকাণ্ডে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে চলেছেন ফরিদ মাহমুদ।