বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০

‘শান্তিপূর্ণ সমাজ বিনির্মাণে সুফি চর্চা অবিকল্প মাধ্যম’

প্রকাশিতঃ ৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | ২:১৮ অপরাহ্ন


চট্টগ্রাম : শাহানশাহ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভান্ডারী (ক) ট্রাস্টের ম্যানেজিং ট্রাস্টি শাহ সুফি হযরত সৈয়দ মোহাম্মদ হাসান মাইজভান্ডারী বলেছেন, শান্তি ও ন্যায়বিচারের সুফল পেতে হলে ক্ষমা নিশ্চিত করতে হবে। ক্ষমার উদারতার শিক্ষা মেলে তাসাউফ চর্চার মাধ্যমে। যার মাধ্যমে সাম্য প্রতিষ্ঠা সহজ হয়।

গত ২ ডিসেম্বর বিকেল স্থানীয় সময় বিকেল ৪ টায় ক্যমব্রিজ সিটির ১০১ রজার স্ট্রিট স্টুডিও হলে এই মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতির বক্তব্যে শান্তিপূর্ণ সমাজ বিনির্মাণে সুফি চর্চা একটি অবিকল্প মাধ্যম বলে উল্লেখ করে সৈয়দ মোহাম্মদ হাসান মাইজভান্ডারি বলেন, মাইজভান্ডারি ত্বরিকায় ধর্ম সাম্যের শিক্ষা, ধন সাম্যের শিক্ষা ও বিচার সাম্যের শিক্ষা পাওয়া যায়।

এমআইটির পোস্ট ডক্টোরাল স্কলার ড. এম ইমরানুল করিমের সঞ্চনালনায় মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন, নিউইংল্যান্ডের সৈয়দ নুরুজ্জামান, ডিজেস্টার সিলড্রেন এন্ড ইনফেন্টস ইন্টারন্যাশনাল’র প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ডা. এহসান হক। SHEBI.org এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও ম্যাসাসুসেট ওয়াটার ডেভেলপমেন্ট অথরিটির প্রাক্তন ডিভিশনাল এমআইএস লিজিয়ন ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী ফিরোজ খান, এমআইটির প্রাক্তন ক্যানসার গবেষক ডা. গোলাম মোস্তাফা, ব্রেন্ডিজ ইউনিভার্সিটির ভিজিটিং রিসার্স স্কলার প্রণব বনিক, র্হাবার্ড মেডিকেল স্কুল এফিলিয়েটেড রিসার্স প্রজেক্টের গবেষণা সহকারী টিপু চৌধুরী প্রমুখ।

এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে শাহানশাহ হযরত জিয়াউল হক মাইজভান্ডারী ট্রাস্টের উল্লেখযোগ্য কর্মকাণ্ডের উপর নির্মিত একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। পরে মাইজভান্ডারী গানের অংশ বিশেষ পরিবেশন করা হয়।