বৃহস্পতিবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

স্কুল ছাত্রকে অপহরণের পর হত্যা : তিনজনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৫, ২০১৮, ৪:২০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় মুক্তিপণের জন্য অষ্টম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে অপহরণের পর হত্যার দায়ে তিনজনের ফাঁসির রায় দিয়েছে চট্টগ্রামের একটি আদালত। অপরাধে জড়িত থাকা প্রমাণিত না হওয়ায় এত আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের সপ্তম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ বেগম ফেরদৌস আরা এ রায় ঘোষণা করেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত তিনজন হলেন- রাজীব রায় রাজু, বিজয় ভট্টচার্য ও আবদুস সালাম বেলাল। রায়ের সময় কারাগারে থাকা রাজীবকে আদালতে হাজির করা হয়। বাকি দুজন জামিনে বের হয়ে পলাতক আছেন। অপরাধে জড়িত থাকা প্রমাণিত না হওয়ায় বেকসুর খালাস পেয়েছেন মামলার আরেক আসামি রেজাউল করিম খোকন।

বিষয়টি একুশে পত্রিকাকে নিশ্চিত করেছেন বাদি পক্ষের আইনজীবী দেলোয়ার।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১২ সালের ১৩ অগাস্ট রাঙ্গুনিয়ার রোয়াজার হাট এলাকা থেকে অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী মোহাম্মদ আজমকে অপহরণ করে তার মায়ের কাছে মুক্তিপণ দাবি করে আসামিরা।

ওই ঘটনায় আজমের মা বাদী হয়ে চারজনের বিরুদ্ধে রাঙ্গুনিয়া থানায় মামলা করেন। মামলা হওয়ার পর পুলিশ প্রথমে রাজুকে এবং পরে তার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে অপর তিনজনকে গ্রেপ্তার করে। তাদের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ওই বছরের ১২ সেপ্টেম্বর রাঙ্গুনিয়ার পোমরায় আসামি বিজয়ের বাড়ির পাশ থেকে আজমের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

তিন আসামি আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দেয়। কিন্তু পরে দুজন জামিনে বের হয়ে পলাতক আছেন।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২৬ মে পুলিশ চার জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়। অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে ২০১৪ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর আদাল বিচার শুরু করে। বাদীপক্ষে মোট ২৪ জনের সাক্ষ্য শুনে আদালত বৃহস্পতিবার রায় ঘোষণা করল।

একুশে/এএ