মনিকার জবানবন্দি, জামিন পেয়েছেন কমলেশ

চট্টগ্রাম: অপহরণ নয়, নিজের ইচ্ছায় ভারতে গিয়েছিলেন জানিয়ে চট্টগ্রামের একটি আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন চট্টগ্রামের গানের শিক্ষিকা মনিকা বড়ুয়া রাধা (৪৫)।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম মহিউদ্দিন মুরাদের আদালত এই জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

একই আদালত মনিকার কথিত স্বামী কমলেশ কুমার মল্লিককে (৩৫) জামিন দিয়েছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক রাজেশ বড়ুয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আদালতে জবানবন্দিতে মনিকা জানান, ফেসবুকে তার সঙ্গে পরিচয় হয় ভারতের নাগরিক ব্যবসায়ী কমলেশ কুমার মল্লিকের সাথে। পরিচয় প্রেমে রূপ নিলে দুজন বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। নিজের ইচ্ছায় গত ১২ এপ্রিল চট্টগ্রাম থেকে ভারত গিয়েছিলেন মনিকা। এরপর তারা কলকাতায় একটি মন্দিরে বিয়ে করেন।

‘বিয়ের পর সিদ্ধেশ্বরী এলাকার একটি ফ্ল্যাটে সংসার পাতেন। ব্যবসার কাজে কমলেশ বাংলাদেশে আসলে ৪ নভেম্বর তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তার কথামতো আমি দেশে ফিরলে সীমান্ত থেকে পুলিশ আমাকে ধরে চট্টগ্রামে নিয়ে আসে। আমাকে কেউ অপহরণ করেনি।’

প্রসঙ্গত গত ১২ এপ্রিল লালখান বাজারের হাই লেভেল রোডের বাসা থেকে গান শেখানোর জন্য বের হয়েছিলেন মনিকা। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। এ বিষয়ে গত ১৩ এপ্রিল নগরীর খুলশী থানায় চট্টগ্রামের সাংবাদিক দেবাশীষ বড়ুয়া দেবু একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। এরপর ২৮ এপ্রিল অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে অপহরণ সন্দেহে মামলা করেন দেবাশীষ।

এরপর ৪ এপ্রিল ঢাকার ধানমন্ডির ৩২ নম্বর সড়ক থেকে কমলেশ কুমার মল্লিককে গ্রেফতার করা হয়। এরপর কৌশলে ৬ নভেম্বর দুপুরে মনিকাকে ভোমরা সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে নিয়ে আসা হয়।