২০ জুন ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৬, বৃহস্পতিবার

‘সাংবাদিকদের মধ্যে যাতে আতঙ্ক না থাকে সে লক্ষ্যে কাজ করব’

প্রকাশিতঃ রবিবার, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯, ১:১১ অপরাহ্ণ


ঢাকা: সাংবাদিকদের মধ্যে আতঙ্ক যাতে না থাকে সেই লক্ষ্যে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। রোববার সচিবালয়ে তথ্যমন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ১৪টি সংস্থার প্রধানদের সঙ্গে এক সমন্বয় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সম্প্রচার আইন অনেকদূর এগিয়েছে। গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকদের মর্যাদা বৃদ্ধিতে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। কোনো বিষয়ে সাংবাদিকদের যাতে আতঙ্কে থাকতে না হয় আমরা সেই ভূমিকা রাখব।

জামায়াতকে নিয়ে নির্বাচন করায় ভুল হয়েছে বলে স্বীকার করায় ড. কামাল হোসেনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ড. কামালের এই ভুল স্বীকার প্রমাণ করে তিনি পদে পদে ভুল করছেন। আশা করি ভবিষ্যতে তিনি এই ভুল আর করবেন না।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ড. কামালের প্রতি আমাদের আহ্বান আপনার সংসদ সদস্যদের শপথ নিতে বলুন। গণতন্ত্রের বিকাশে যাতে তারা সংসদে আসেন। যে ভোটাররা ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচন করেছেন তাদের সম্মান দিতে শিখুন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এ সময় একটি পক্ষ দেশকে পেছন থেকে টেনে ধরছে। যাতে দেশ সামনের দিকে এগুতে না পারে।

তিনি বলেন, প্রকৃত সমালোচনা দেশকে সঠিকপথে নিয়ে যায়। সমালোচনাকে সমাদৃত করার চর্চাটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুরু করেছিলেন। তিনি দেশবাসীকে যে কোনো বিষয়ে গঠনমূলক সমালোচনা করার আহ্বান জানিয়েছেন। দেশকে সোনার বাংলা গড়ার জন্য আমাদের স্বপ্ন আছে। স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছাতে সবাইকে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে। এখন গ্রামের রাস্তায়ও বাতি জ্বলে, অন্ধকার নেমে আসার সঙ্গে সঙ্গে বাতি জ্বলে। শেখ হাসিনার কারণে গ্রাম আজ বদলে শহরে রূপান্তর হয়েছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আজকে আমার দেশের কাপড় বিদেশে রফতানি হচ্ছে। একটা সময় ছিল বিদেশ থেকে কাপড় এনে আমাদের সেলাই করে পরতে হতো। হাতিরঝিলে কোনো বিদেশি গেলে মনে হবে এটি প্যারিস। বাংলাদেশে কোনো কুঁড়েঘর নেই, এই কুঁড়েঘর এখন কবিতায়।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ নিউক্লিয়াস ও স্যাটেলাইন ক্লাবের গর্বিত সদস্য। শেখ হাসিনার অভূতপূর্ব নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। দেশ এখন উন্নয়নশীল দেশের অভিযাত্রায়।

কোনো দেশকে এগিয়ে নিতে হলে সম্বিলিত প্রচেষ্টার দরকার হয়। ফলে আমাদের সম্বিলিত প্রচেষ্টার সঙ্গে গণমাধ্যমের দায়িত্বও অনেক বেশি, যোগ করে তথ্যমন্ত্রী।

মেয়েরা পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ালেখা করলেই হবে- সম্প্রতি হেফাজত আমিরের দেওয়া এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি যত দূর জানি, হেফাজত আমির যে বক্তব্য দিয়েছিলেন তা তারা অস্বীকার করেছেন, ফলে এটা নিয়ে আর কথা বলা জরুরি নয়।