২৩ মে ২০১৯, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, বুধবার

‘পাকিস্তান এখন বাংলাদেশ হতে চায়- কারণ কী’

প্রকাশিতঃ শনিবার, মার্চ ৩০, ২০১৯, ৫:১৭ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম: দেশের বদলে যাওয়ার চিত্র তুলে ধরে তরুণদের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন চট্টগ্রাম নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রিয় চট্টগ্রাম’র ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠা বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিজয় বসাক বলেন, যে দেশকে আমরা পরাজিত করেছি, পাকিস্তান এখন বাংলাদেশ হতে চায়- কারণ কী। কারণ তোমাদের মত স্বেচ্ছাসেবী তরুণরা আছো বলেই, তারা আজ আমাদের মত হতে চায়। পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইমরান খান বলেছেন, তারা দেশকে সুইজারল্যান্ডের মত বানাবেন। তাদের বুদ্ধিজীবীরা বলেন, বাদ দেন এসব কথা। আগে বাংলাদেশের মত করে দেন। এটাই আমাদের কাছে প্রাপ্তি।

যুব সমাজের জন্য মাদক বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে মন্তব্য করে পুলিশ কর্মকর্তা বিজয় বসাক বলেন, কথায় আছে, পরের ছেলে পরমানন্দ, গোল্লায় গেলে মহাআনন্দ। পরের ছেলে যদি গোল্লায় যায় আমরা খুব আনন্দ পাচ্ছি। কিন্তু মনে রাখবেন, পরের ছেলে যখন গোল্লায় যাবে তখন আপনার, আমার ছেলেটা বা মেয়েটাকে নিয়ে যাবে।

তিনি বলেন, ছোটবেলায় দেখতাম, কেউ যখন সিগারেট খেত, সে লুকিয়ে খেত। এখনকার দিনে যারা সিগারেট খায়, তারা ওপেন খায়। আর অভিভাবকরা মুখ ঘুরিয়ে চলে যায়। এটা আমাদের অক্ষমতা।

বিজয় বসাক বলেন, যারা পরের ছেলেকে গোল্লায় যেতে দেখে আনন্দ পাচ্ছেন, মনে রাখবেন নেশা কেউ একা করেনা। নেশার জন্য তার একটি গ্রুপ চাই। আর নেশার টাকাটা যখন আপনি দেবেন না, তখন সে টাকাটা কোন না কোনভাবে সংগ্রহ করার চেষ্টা করবে। সেটি নি:সন্দেহে ভালো পথ না। এই অবস্থা থেকে আমাদেরকে বেরিয়ে আসতে হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিন বলেন, প্র্রধান আলোচকরা অনেক সময় নিয়ে কথা বলেন, দীর্ঘ বক্তৃতা দেন। দীর্ঘ বক্তৃতার ক্ষেত্রে অনেকে বিরক্ত হয়, কেউ হাই তুলে, কেউ ঘুমায় আর কেউ মোবাইল ব্যবহার করে। এজন্য প্রধান আলোচকের বিষয়ে আমার আপত্তি ছিল। আমি বললাম, প্রধান আলোচক না, একজন সাধারণ অতিথি হয়েই অনুষ্ঠানে আসতে চাই।

‘আয়োজকরা রাজী হননি বলে এই প্রধান আলোচক শব্দটা লাগাতে হয়েছে। প্রধান আলোচক হতে চাই না, কারণ আমি দীর্ঘ সময় বক্তব্য রাখতে পারিনা। কথাবার্তা এলোমেলো হয়ে যায়। তবে তরুণদের যে কোন অনুষ্ঠান, আলোচনা আমাকে আকৃষ্ট করে। এজন্য এ ধরনের অনুষ্ঠান পেলে আমি অংশগ্রহণ করি।’ যোগ করেন তিনি।

গত ২৮ মার্চ বিকেলে শিল্পকলা একাডেমীতে উক্ত আয়োজনে উদ্ভোধক ছিলেন লায়ন্স জেলার প্রথম ভাইস গভর্নর কামরুন মালেক। বিশেষ অতিথি ছিলেন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জুয়েল দেব, লায়ন গোপাল কৃষ্ণ লালা, সেলিম উদ্দিন চৌধুরী, লায়ন ওসমান ফারুকী, ডা. মেজবাহ উদ্দিন তুহিন।

প্রিয় চট্টগ্রামের সভাপতি সৈয়দ মাহফুজুর রহমানের সভাপতিত্বে এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রিয় চট্টগ্রামের প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ মেহেবুব আলী। উপস্থাপনা করেন এম এ কে এম মুন্না তালুকদার।

অনুষ্ঠান শেষে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে সংগঠনের পক্ষ থেকে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন, মানবিকতায় বিশেষ অবদান রাখায় চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক জহিরুল ইসলাম ভুইঁয়া, সামাজিক সংগঠন স্বপ্নযাত্রী ফাউন্ডেশন, বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন, ডি ইঞ্জিনিয়ারস ক্লাব ও নগরফুলকে সম্মাননা দেয়া হয় অনুষ্ঠানে।