২৭ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, বুধবার

চট্টগ্রামে বিএনপির কোনো চিহ্ন রাখতে চান না ফজলে করিম

প্রকাশিতঃ সোমবার, এপ্রিল ১, ২০১৯, ৭:৩৭ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামে বিএনপির কোনো চিহ্নই যেন না থাকে সেজন্য কাজ করে যেতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন চট্টগ্রাম-৬ আসনের সংসদ সদস্য এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী।

স্বাধীনতা পদক প্রাপ্তিতে সোমবার বিকেলে নগরের ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে চট্টগ্রাম উত্তর-দক্ষিণ-মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের সংবর্ধনায় তিনি এ কথা বলেন।

সাংসদ এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী বলেন, আমাদের এখন সুদিন আছে। এই সুদিনকে কাজে লাগিয়ে আগামীতে যেন এই চট্টগ্রামের বুকে চিরতরে বিএনপির কোনো চিহ্নই যাতে না থাকে, সে কাজটা আমাদের করতে হবে।

এসময় করতালির মাধ্যমে হলভর্তি মানুষ সাংসদকে সমর্থন জানান।

এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী বলেন, বিএনপি একটি ক্লাব। বিএনপির আরেকটি মানে, হাছান মাহমুদ সাহেব অনেক সময় সুন্দর করে বলেন, বিএনপি মানে বাংলাদেশ নাবালক পার্টি। বাংলাদেশ নাবালক পার্টিকে নিয়ে আমরা অনেক মুসিবতে আছি। কারণ এটা লিমিটেড ক্লাব।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনকে উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের জন্য আমরা একটি স্থায়ী ঠিকানা চাই। আমরা কেউই থাকবো না। কিন্তু এই স্থায়ী ঠিকানার মাধ্যমে আমাদের দল শক্তিশালী হবে।

তিনি আরো বলেন, ছয় দফা আন্দোলন থেকে শুরু করে প্রায় সব আন্দোলন চট্টগ্রাম থেকে শুরু হয়েছিল। ১৯৩০ থেকে ১৯৩৩ সালের কথা বলছি, সূর্যসেন কিন্তু সে সময় চট্টগ্রামকে তিনদিন স্বাধীন রেখেছিল।

সাংসদ ফজলে করিম বলেন, বঙ্গবন্ধু যে আদর্শ নিয়ে রাজনীতি করেছেন, সোনার মানুষ তৈরী করার জন্য, দুঃখী মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য, মানুষকে দিক নির্দেশনা দেওয়ার জন্য। এ সকল কিছু আমরা যারা কর্মী আছি সে কাজগুলো করা আমাদের দায়িত্ব-কর্তব্য। ৩০ লক্ষ শহীদের বিনিময়ে, ২ লক্ষ মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে দেশ, লাল-সবুজ পতাকা আমরা পেয়েছি। আমাদের দায়িত্ব-কর্তব্য অনেক বেশী।

তিনি বলেন, আজকে আমরা জিডিপি থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রে উপর দিকে যাচ্ছি। এটা আমাদের ধরে রাখতে হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে ধাবিত করছেন। সামনে উন্নত দেশে আমরা পরিণত হবো। এজন্য আমাদেরকে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন ছাড়াও প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। অন্যদের মধ্যে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুস সালাম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান প্রমুখ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।