- একুশে পত্রিকা - https://www.ekusheypatrika.com -

দেশব্যাপী জাল টাকা ছড়াচ্ছে দুই নারী!

চট্টগ্রাম : দেশব্যাপী জাল টাকার বিস্তার ঘটাচ্ছে স্বপ্না বেগম তানিয়া (৩০), ফেরদৌসী বেগমসহ (৫২) একটি শক্তিশালী নারী জালনোট চক্র।

সিএমপির কোতোয়ালী থানা পুলিশ জাল টাকাসহ চক্রের সদস্য স্বপ্না বেগম, ফেরদৌসী বেগম এবং তাদের সহযোগী শামীমকে আটকের পর এই তথ্য জানিয়েছে পুলিশ।

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন একুশে পত্রিকাকে জানান, চক্রটির শেকড় সারাদেশে বিস্তৃত। দীর্ঘদিন ধরে তারা জালনোট সরবরাহ ও বাজারজাতের কাজে জড়িত। স্বপ্না বেগম তানিয়ার বিরুদ্ধে এ সংক্রান্ত ৩টি এবং ফেরদৌসী বেগমের বিরুদ্ধে ৪টি মামলা রয়েছে দেশের বিভিন্ন থানায়। তাদের সিন্ডিকেটে বেশ কয়েকজন নারী রয়েছে, রয়েছে সমাজের প্রভাবশালী ব্যক্তিবর্গ। পুরো চক্রটিকে আইনের আওতায় আনতে আমরা কাজ করছি।-বলেন ওসি মহসীন।

এর আগে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাত ১১ টার দিকে নগরের স্টেশন রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে স্বপ্না বেগম তানিয়া ও মো. শামীমকে (২১) ১ হাজার টাকার ১৩৫টি নোটসহ (১ লাখ ৩৫ হাজার) গ্রেফতার করে কোতোয়ালী থানা পুলিশ।

জিজ্ঞাসাবাদে স্বপ্না বেগম তানিয়া পুলিশকে জানান, নোটগুলো তিনি কুমিল্লার ফেরদৌসী বেগম থেকে কিনেছেন। সে তথ্যমতে, বুধবার ভোরে স্থানীয় পুলিশের সহযোগিতায় ফেরদৌসী বেগমকে কুমিল্লার কোতোয়ালী এলাকা থেকে গ্রেফতার করে সিএমপির কোতোয়ালী থানা পুলিশ।

তারা তিনজনের বিরুদ্ধে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫-অ (ই) ধারায় কোতোয়ালী থানায় মামলা হয়েছে।

স্বপ্না বেগম তানিয়া, স্বামী মনির হোসেন জাবেদ, পিতা-মজিবুর রহমান-এর বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর থানার পরদাবাদ এলাকায়। বর্তমানে তিনি সীতাকুণ্ড উপজেলার মাদামবিবিরহাট এলাকার নেভী রোডের সবুর ভিলার বাসিন্দা।

গ্রেফতার মো. শামীম, পিতা-ইব্রাহিম-এর বাড়ি মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়া থানার হোগলাগান্দি। তবে তিনি স্বপ্না বেগমের সাথে সীতাকুণ্ডের সবুর ভিলায় থাকেন।

সাধারণ দোকানদারের চোখে ধুলো দিযে ১ হাজার টাকা জাল নোটে কেনাকাটার কাজটি মূলত শামীমই করে বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে।

গ্রেফতার ফেরদৌসি বেগম স্বামী-মৃত কাজী জাহাঙ্গীর, পিতা-আরব আলী, মাতা-হাসনেয়ারা বেগম, সাং-দক্ষিণ চর্থা, থিরা পুকুর পশ্চিম পাড়, আরব আলীর বাড়ী, থানা-কুমিল্লা কোতোয়ালী, জেলা-কুমিল্লার বিরুদ্ধে কুমিল্লার চান্দিনা থানা, কুমিল্লার সদর দক্ষিণ থানা, কুমিল্লার কোতোয়ালী মডেল থানা ও কক্সবাজার সদর থানায় ধারা-২৫-ই এর ১ (ই) ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনে প্রাথমিকভাবে ৪টি মামলার খবর পেয়েছি পুলিশ।

এছাড়া স্বপ্না বেগমের বিরুদ্ধে বি-বাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর থানা, কুমিল্লার বুড়িচং থানা এবং কুমিল্লার বাঙ্গরা বাজার থানায় একই আইনে ৩টি মামলার সন্ধান পেয়েছে পুলিশ।

একুশে/এটি