বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬

ওবায়দুল কাদেরের প্রসঙ্গ এড়িয়ে গেলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ সোমবার, জুলাই ৮, ২০১৯, ৯:৩৩ অপরাহ্ণ


ঢাকা: প্রধানমন্ত্রীর চীন সফরের সময় যুদ্ধাপরাধী পরিবারের সন্তানদের আওয়ামী লীগের সদস্য হতে বাধা নেই জানিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে একদিনের মাথায় তা আবার প্রত্যাহার করে নেন দলের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রোববার প্রধানমন্ত্রী ৬ দিনের চীন সফর শেষে দেশে ফিরে সোমবার বিকেলে গণভবনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন।

চীন সফরের প্রাপ্তি, অর্জন লিখিত আকারে সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

এরপর যথারীতি শুরু হয় প্রশ্নোত্তরপর্ব। একপর্যায়ে প্রশ্ন করতে দাঁড়ান বৈশাখী টেলিভিশনের জয়দেব দাশ। চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ রাখার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণের পাশাপাশি যুদ্ধাপরাধী পরিবারের সন্তানদের আওয়ামী লীগে প্রবেশে বাধা নেই-ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের বিষয়ে আওয়ামী লীগের অবস্থান জানতে চান তিনি।

জয়দেব দাশ বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রী বিট কভার করার পাশাপাশি একইসাথে আওয়ামী লীগ বিটও করি। গত ২৮ এবং ৩০ জুন আওয়ামী সাধারণ সম্পাদক যুদ্ধাপরাধী পরিবারের সদস্যরা আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবে জানিয়ে পরেরদিন এ বিষয়ে আবার ব্যাখ্যা দেন। তখন প্রধানমন্ত্রী বলে উঠেন, ব্যাখ্যা দিলে সে বিষয়টি আবার কেন?

এ সময় জয়দেব দাশ বলেন, এরপরও অনেক কথা হচ্ছে। একটি গ্রুপ গণআদালত করার কথা বলছে। তাই এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের অবস্থান জানতে চাই।

এ সময় ওবায়দুল কাদের প্রধানমন্ত্রীর পাশেই বসা ছিলেন এবং প্রশ্নটি করার পর তার মুখটি মলিন দেখা যায়।

এরপর প্রধানমন্ত্রী চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর ইস্যুতে দীর্ঘ বক্তব্য দিলেও ওবায়দুল কাদেরের ওই বক্তব্য ইস্যুতে কিছুই বলেননি। অবশ্য আগের প্রশ্নের উত্তরে নাতিদীর্ঘ বক্তব্য দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী হয়তো সে প্রসঙ্গটি ভুলে গেছেন-এমনও হতে পারে।