বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

সমস্যা শুনে তাৎক্ষণিক সমাধান দিলেন ওসি মহসীন

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, জুলাই ১১, ২০১৯, ১:১৮ পূর্বাহ্ণ


চট্টগ্রাম: নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন বিআরটিসি চৌদ্দ জামতলা এলাকায় মাদক ব্যবসা করতেন জনি। মামলায় জড়িয়ে তিনি এখন ফেরারি আসামি। তবে জনি এ অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে চান, ফিরতে চান স্বাভাবিক জীবনে।

মাদকের আখড়া হিসেবে কুখ্যাতি পাওয়া চৌদ্দ জামতলা এলাকায় বুধবার বিকেলে ‘উঠান বৈঠকে’ জনির স্বজনদের কাছ থেকে এই ‘সমস্যার’ কথা জানতে পারেন কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন।

অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত মানুষের কাছ থেকে ওসি জানতে চান, জনিকে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার সুযোগ দেওয়া যাবে কিনা? প্রায় সবাই ‘হ্যাঁ’ উচ্চারণ করেন এবং জানান, জনি ভালো ছেলে ও পরোপকারী!

এরপর ওসি মহসীন বলেন, মাদক ব্যবসা করে ভালো মানুষ হওয়া যায় না, অন্যের উপকার করা যায় না। কেউ যদি চুরি-ডাকাতি করে সেই টাকা দিয়ে দান-খয়রাত করে, তাকে আমরা ভালো বলতে পারি না।

‘এখন আপনারা যেহেতু জনিকে সুযোগ দিতে বলেছেন, সে মাদকের জগত থেকে ফিরতে চাইলে আমি সুযোগ দেবো। তাকে থানায় গিয়ে মুচলেকা দিতে হবে। আপনারা তার প্রতি লক্ষ্য রাখবেন, আমিও রাখবো।’ যোগ করেন ওসি মহসীন।

এক ব্যক্তি ওসিকে জানান, চৌদ্দ জামতলা এলাকায় তরুণরা মাদক গ্রহণ করছে। এরপর ওসি মহসীন সেখানকার মাদক ব্যবসায়ী ফয়সাল ও আকলিমার অপতৎপরতার ব্যাপারে জানতে চান। তখন কেউ কেউ ওসিকে জানান, চৌদ্দ জামতলা এলাকায় এখন তারা মাদক ব্যবসা করছে না, বাইরের স্পট থেকে মাদক কিনে ওই এলাকার ছেলেরা সেবন করছে।

এরপর ওসি বলেন, বাইরের কোন স্পট থেকে মাদক আসছে সেটা আমরা খতিয়ে দেখবো। আপনারা-আমরা একসঙ্গে মিলে মাদকমুক্ত করবো। আজকে থেকে আমরা পাহারাদার, আর আপনারা পুলিশের ভূমিকায় থাকবেন। তাহলে চৌদ্দ জামতলা এলাকার যে বদনাম সেটা মুছে যাবে।

ওসি মহসীন বলেন, আমার সাথে কথা বলতে কোন মাধ্যমের দরকার নেই। প্রত্যেক সপ্তাহে আমি কোন না কোন এলাকায় যাবো। উদ্দেশ্যে হচ্ছে ওই এলাকার সমস্যাগুলো শোনা। মাদকের স্পট, জুয়ার স্পট, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, নারী নির্যাতন, ইভটিজিং- এ ধরনের সমস্যাগুলো শুনে আমি তাৎক্ষণিকই সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো। কোতোয়ালী থানাকে সবার আস্থা ও ভরসার কেন্দ্রে আমি পরিণত করতে চাই।

এদিকে পুরো অনুষ্ঠানজুড়ে নানা সমস্যার কথা নির্ভয়ে বলেছেন অনেকেই। আবার অনুষ্ঠানস্থলের পাশে ‘হ্যালো ওসি’ বুথে গিয়েও কেউ কেউ সমস্যার কথা জানিয়েছেন কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীনকে। অপরাধমুক্ত এলাকা গড়তে ওসি মোহাম্মদ মহসীনকে কিছু প্রস্তাবও দিয়েছেন তারা।

সমাধানযোগ্য বিষয়গুলো তাৎক্ষণিকই সমাধান করেছেন ওসি মহসীন। বাকিগুলোর ক্ষেত্রে আইনি সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।