সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬

মেয়র নির্বাচন : কাঁটা হতে চান না, কাঁটা সরাতে চান সুজন

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯, ১০:১৩ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম : আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও নাগরিক উদ্যোগের উপদেষ্টা খোরশেদ আলম সুজন।

সোমবার (৯ আগস্ট) রাতে একুশে পত্রিকার সঙ্গে টেলিফোন আলাপচারিতায় প্রচ্ছন্নভাবে এই ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন তিনি। তবে এজন্য মারামারি, কাটাকাটি কিংবা ধাক্কাধাক্কি করতে নারাজ সুজন। বললেন, এ উপলক্ষে কারো পথের কাঁটাও হবেন না তিনি। বরং সুযোগ পেলে সব মানুষের পথের কাঁটা সরিয়ে দিতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবেন।

মেয়র নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া নিয়ে সুজন বলেন, গণমাধ্যম, নাগরিকসমাজসহ নানা কর্নার থেকে আমার কাছে প্রতিদিন অনুরোধ আসছে, ফোন আসছে। তারা বলছেন, আপনি মেয়র পদে প্রার্থী হন। আপনিই পারবেন এ শহরকে এগিয়ে দিতে।

উত্তরে তাদের বলেছি, আমরা হলাম বঙ্গবন্ধুর ডোয়ার বাঁশ (বঙ্গবন্ধুর বাঁশঝাড়ের বাঁশ)। বঙ্গবন্ধু কন্যা যদি মনে করেন আমাকে কাজে লাগাবেন, তা যে কাজই হোক না কেন দায়িত্ব পেলে সর্বোচ্চ ত্যাগ-তিতিক্ষার মাধ্যমে সেই কাজটি এগিয়ে নিতে প্রাণপণ লড়ে যাবো।

দীর্ঘদিন প্রয়াত মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর সান্নিধ্য-সাহচর্য তাঁকে অভিজ্ঞ, সমৃদ্ধ করেছে জানিয়ে সুজন বলেন, মহিউদ্দিন চৌধুরী টানা সতেরো বছর চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র ছিলেন। পুরোটা সময় আমি প্রিয় নেতার সাথে ছায়ার মতো লেগেছিলাম। চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে ৫ থেকে ৬ ঘণ্টা থাকতাম বউ-বাচ্চার সঙ্গে, বাকি ১৮ ঘণ্টা কাটাতাম মহিউদ্দিন ভাইয়ের সঙ্গে। কাছে থেকেই দেখেছি একটি অনুন্নত শহরকে উন্নয়নের আশ্চর্যজনক সোপানে কীভাবে তিনি নিয়ে গেছেন। উনার (মহিউদ্দিন) যত ধরনের দফা সবগুলোই আমি লিখতাম। সুতরাং সুযোগ পেলে এই শহরটাকে আরো বেশি এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য আমি অবদান রাখতে পারবো।

তিনি বলেন, আমার কাছে টাকা নেই, বাকি সব আছে। সব থাকার পরও টাকার কাছে বারবার আমি হেরে যাচ্ছি। অবশ্য এই হারার মাঝেও আমার একধরনের আনন্দবোধ আছে। এই শহরে কেউ আমাকে অন্তত চোর বা ডাকাত বলে ডাকে না। এটাই পরম শান্তি-প্রাপ্তি।

যেমন ধরুন, আজকে (সোমবার) নাগরিক সমস্যা সমাধানের জন্য বিদ্যুৎ অফিসে গেলাম। এই খবর শুনে অন্তত এক হাজার মানুষ আমার কাছে এসে হাজির হয়েছেন। তাদের অভাব-অভিযোগ, সমস্যার কথা আমার মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিভাগের কাছে তুলে ধরেছেন। সাধারণ মানুষ আমাকে ভালোবাসেন, আমার উপর আস্থা রাখেন। কারণ ক্ষমতায় না থেকেও নগরবাসীর দুঃখ-দুর্দশা লাঘবে আমি যে প্রতিনিয়ত কাজ করছি সেটা তারা দেখতে পাচ্ছেন, উপলব্ধি করছেন। বলেন খোরশেদ আলম সুজন।

সুজন বলেন, আমার রাজনীতি আছে, ফিলোসপি আছে, আছে দেশাত্মবোধ। এসব দিয়েই আমি পরিচালিত হতে চাই। সেজন্য আমি কারো পথের কাঁটা হতে চাই না। মানুষের পথের কাঁটা সরাতে চাই।

প্রসঙ্গত, নিয়ম অনুযায়ী ৫ বছর মেয়াদপূর্তির ১৮০ দিন আগে সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জয়ী হয়ে টাইমফ্রেমের বাধ্যবাধকতার কারণে সেই বছরের ২৮ জুলাই দায়িত্বভার গ্রহণ করেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। সেই হিসেবে আগামী বছরের মার্চ মাসে অনুষ্ঠিত হবে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন।

একুশে/এটি