সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ভোলার ঘটনাকে ইস্যু করে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করলে রেহাই নেই

চট্টগ্রাম আঞ্চলিক টাস্কফোর্স ও আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় বিভাগীয় কমিশনার

প্রকাশিতঃ সোমবার, অক্টোবর ২১, ২০১৯, ৯:০৫ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম :  ‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে ভোলার ঘটনায় সরকার কাউকে ছাড় দেবেনা। এ ঘটনাকে ইস্যু করে এখানে কেউ কোন ধরণের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি বা ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করা হলে রেহাই নেই।’

সোমবার (২১ অক্টোবর) সকালে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে পৃথকভাবে অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম আঞ্চলিক টাস্কফোর্স সভা, বিভাগীয় আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা, জেলা প্রশাসক সমন্বয় সভা ও বিভাগীয় রাজস্ব সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সরকারের নির্দেশনায় আইন-শৃংখলা বাহিনীর তৎপরতার কারণে জঙ্গিবাদ প্রায় নির্মুল হয়ে গেছে। ক্যাসিনো, মাদক, সন্ত্রাস পুরোপুরি নির্মুল করতে না পারলেও কতটুকু প্রশমিত করা যায় সে বিষয়গুলো প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে দেখতে হবে। ফেসবুক পোস্ট নিয়ে ভোলার ঘটনায় সরকার কাউকে ছাড় দেবেনা। এ ঘটনাকে ইস্যু করে এখানে কেউ কোন ধরণের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি বা ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করা হলে রেহাই নেই।

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, সারাদেশের ন্যায় চট্টগ্রাম বিভাগের প্রত্যেক জেলায় অতিরিক্ত নজরদারী বাড়ানোর মাধ্যমে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। যে কোন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে প্রশাসন প্রস্তুত রয়েছে। হাটহাজারীর ও অন্যান্য এলাকার মাদ্রাসা এবং মঠ-মন্দিরগুলোতে পুলিশের পর্যাপ্ত ফোর্স দেয়া হয়েছে, বিজিবি ও নামানো হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, মায়ানমার ও অন্যান্য দেশ থেকে প্রতিদিন পেঁয়াজ আসলে ও বাজার অস্থির। সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে অসাধু ব্যবসায়ী ও আমদানিকারকেরা পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি করেছে। বাণিজ্য মন্ত্রনালয়কে এ বিষয়ে জানানো হয়েছে। বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখা আমাদের দায়িত্ব রয়েছে । গুদামে পেঁয়াজ মওজুদ রয়েছে কি না তা নজরদারীর পাশাপাশি প্রতিদিন পাইকারী ও খুচরা বাজারে তদারকি করা হচ্ছে।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার অফিস পৃথক সভাগুলোর আয়োজন করেন। বিগত সভার সিদ্ধান্ত ও অগ্রগতি তুলে ধরেন বিভাগীয় কমিশনার অফিসের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইনামুল হাসান, মোঃ মোজাম্মেল হক ও মোঃ মামনুন।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পৃথক সভাগুলোতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, সিএমপি কমিশনার মোঃ মাহাবুবর রহমান, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার শংকর রঞ্জন সাহা, বিভাগীয় স্থানীয় সরকার পরিচালক দীপক চক্রবর্তী, বিজিবি’র রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিঃ জেনারেল মোঃ আমীরুল ইসলাম সিকদার, ডিজিএফআই’র পরিচালক ব্রিঃ জেনারেল মোহাম্মদ এমদাদ উল্লাহ ভূইয়া, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোঃ নুরুল আলম নিজামী, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোঃ হাবিবুর রহমান, সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সামসুদ্দোহা, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মো: নুরুল আলম নিজামী, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) মোঃ হাবিবুর রহমান, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন প্রমুখ।

পৃথক সভাগুলোতে বিভাগের বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে কর্মরত কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

একুশে/এএ