রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের জন্য প্রস্তুতি চট্টগ্রামে

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, নভেম্বর ৮, ২০১৯, ৩:৩৭ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম: বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল ঘণ্টায় সোয়াশ কিলোমিটার বেগের বাতাসের শক্তি নিয়ে ধেয়ে আসছে উপকূলের দিকে। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের জন্য চট্টগ্রামে নানা প্রস্তুতি নিয়েছে প্রশাসন।

শুক্রবার সকাল থেকেই দেশের দক্ষিণাঞ্চলসহ অধিকাংশ এলাকায় বিরাজ করছে মেঘলা আবহাওয়া, কোথাও কোথাও গুঁড়ি গুঁড়ির বৃষ্টিও হচ্ছে।

চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙ্গর ও জেটিতে দুপুর পর্যন্ত পণ্য খোলাস কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকলেও সংকেত বাড়লে নিরাপত্তার স্বার্থে কাজ বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে বন্দর সচিব ওমর ফারুক জানিয়েছেন।

এদিকে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন জানান, মহানগরসহ সকল উপজেলার ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত রয়েছে। সবাইকে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ সম্পর্কে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে বলা হচ্ছে। জরুরী প্রয়োজন এবং তথ্যের জন্য কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। কন্ট্রোল রুমঃ ০৩১-৬১১৫৪৫, ০১৭০০৭১৬৬৯১।

চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী জানান, ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলায় সব উপজেলায় সকল ডাক্তার, নার্স ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মক্ষেত্রে অবস্থান করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আন্দরকিল্লা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের দোতলায় সার্বক্ষণিক জেলা মেডিকেল কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে (ফোন নং ০৩১-৬৩৪৮৪৩)

তিনি আরো জানান, প্রতিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একটি করে উপজেলা মেডিকেল কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। ২৮৪টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় ওষুধ মজুদ রাখা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান বলছেন, শনিবার বিকালের পর বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় ঝড়ের প্রভাব অনুভূত হতে পারে। মধ্যরাতে খুলনা অঞ্চল দিয়ে বুলবুল উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

বুলবুল আরও শক্তি সঞ্চয় করে শুক্রবার সকালে অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়ার পর সংকেত বাড়িয়ে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে সাগর উত্তাল হয়ে ওঠায় বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।