চেক প্রতারণা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত যুবক গ্রেপ্তার


চট্টগ্রাম: চেক প্রতারণা মামলায় এক বছরের সাজাপ্রাপ্ত ওয়াহিদুল আলম (৩০) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে চট্টগ্রামের পটিয়া থানা পুলিশ। শুক্রবার সকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রেপ্তার ওয়াহিদুল আলম পটিয়া পৌর সদরের ৭ নং ওয়ার্ডের বাহুলী এলাকার সামশুল আলমের ছেলে।

জানা যায়, গত ২০১৭ সালের ৬ জুলাই ওয়াহিদুল আলম পাওনা টাকা পরিশোধের জন্য শওকত ওসমান মুন্নার মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান এ কি জে বরাবর ২২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার সমপরিমাণ ঢাকা ব্যাংকের পৃথক দুইটি চেক প্রদান করেন। একই বছরের জুলাই মাসে চেক দুইটি নগদায়নের জন্য ব্যাংকে উপস্থাপন করা হলে চেক দুইটি ডিজঅনার হয়। পরে ওয়াহিদুল আলমকে লিগ্যাল নোটিশ দেয় শওকত ওসমান। তা ওয়াহিদ গ্রহণ না করায় শওকত ওসমান বাদী হয়ে ওয়াহিদের বিরুদ্ধে ২২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার চেক প্রতারণার মামলা দায়ের করেন।

এ মামলায় আদালত ওয়াহিদকে ১ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং দুইটি চেকে উল্লেখিত মোট অর্থের সমপরিমাণ অর্থাৎ ২২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। এ রায়ের পর থেকে ওয়াহিদ পলাতক ছিল। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম নগরের বহদ্দারহাট এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পটিয়া থানা পুলিশ।

পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন জানিয়েছেন, চেক প্রতারণা মামলায় ওয়াহিদুল আলমকে এক বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ওই মামলার ওয়ারেন্টের ভিত্তিতে তাকে নগরের বহদ্দারহাট এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে ওয়াহিদকে আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।