শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৬

আন্তর্জাতিক আদালতে রোহিঙ্গা গণহত্যা বন্ধ চায় গাম্বিয়া

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯, ৯:০৯ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক : অবশ্যই মিয়ানমারে চলমান রোহিঙ্গা গণহত্যা বন্ধের জন্য পদক্ষেপ নিতে হবে বলে জানিয়েছেন গাম্বিয়ার বিচারমন্ত্রী আবুবাক্কার তাম্বাদৌ।

ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিসের (আইসিজে) জাতিসংঘের বিচারকদের কাছে শুনানিতে তিনি এ কথা বলেন। খবর কাতারের গণমাধ্যম আল জাজিরার।

মঙ্গলবার ট্রাইব্যুনালে সূচনা বক্তব্যে তিনি বলেন, মিয়ানমারকে এই গণহত্যা বন্ধ করতে বলার জন্য আপনাদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছে গাম্বিয়া। এই বর্বর ও নির্মম কর্মকাণ্ড থামান। এটি আমাদের সমন্বিত বিবেককে মর্মাহত করেছে এবং এখনও করছে।

২০১৭ সালের আগস্টে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। এসময় গণধর্ষণ, হত্যা ও ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দেয়াসহ জাতিগত নির্মূল অভিযান থেকে বাঁচতে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে প্রতিবেশী বাংলাদেশে আশ্রয় নেন।

মিয়ানমার বিষয়ক জাতিসংঘের ফ্যাক্ট-ফাইন্ডিং মিশনের প্রধান গত অক্টোবর মাসে সতর্ক করে দেয় যে, সেখানে আবার গণহত্যা হওয়ার ঝুঁকি আছে। আরও জানায়, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগে আন্তর্জাতিক আইনি অঙ্গনে মিয়ানমারের জবাবদিহি আদায় করা উচিত।

গণহত্যার অপরাধ বাড়িয়ে দেয়া বা এতে ইন্ধন দেয়ার মতো সব কার্যক্রম বন্ধে নিজেদের ক্ষমতা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য গত ১১ নভেম্বর আইসিজে-তে মামলা করে গাম্বিয়া। তারা ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) পক্ষে এই পদক্ষেপ নেয়।১৯৯১ সালে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পাওয়া অং সান সু চি দ্য হেগে মিয়ানমার প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। মামলার এই সপ্তাহের শুনানি বৃহস্পতিবার পর্যন্ত চলবে।

একুশে/এএ