রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭

সংসদে যোগ দিয়েই কালুরঘাটে সেতুতে সরব মোছলেম (ভিডিও)

প্রকাশিতঃ সোমবার, জানুয়ারি ২০, ২০২০, ৮:০৯ অপরাহ্ণ


ঢাকা: চট্টগ্রামের কালুরঘাটে নতুন সড়ক সেতু ও বোয়ালখালীতে অর্থনৈতিক অঞ্চল করার দাবি জানিয়েছেন চট্টগ্রাম-৮ আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ। এ জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোযোগ আকর্ষণ করেছেন।

সোমবার জাতীয় সংসদে জরুরি জনগুরুত্বসম্পন্ন বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণের নোটিসের ওপর আলোচনায় মোছলেম এই দাবি জানান।

বক্তব্যের শুরুতে সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ বলেন, বাংলাদেশে যেভাবে উন্নয়ন হয়েছে, বিশেষ করে চট্টগ্রামে যে ব্যাপক কাজ হয়েছে তার প্রতিফলন, মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছে। এজন্য বঙ্গবন্ধুকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। মানুষ যে প্রত্যাশা নিয়ে আমাকে সংসদে পাঠিয়েছে, সেই দায়িত্ব যেন আমি সূচারুরূপে পালন করতে পারি।

তিনি বলেন, আমার এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দুঃখ কালুরঘাটের জরাজীর্ণ সেতু। সেই সেতু অতিক্রম করতে গিয়ে অনেকের জীবন শেষ হয়ে গেছে। এই সেতুর প্রত্যাশায় মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছে। সেতুটি করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিজেই ঘোষণা দিয়েছেন। ২০১০ সালে যখন তৃতীয় সেতু উদ্বোধন করা হয়েছিল তখন আমরা একটি জনসভা করেছিলাম।

‘সেখানে মরহুম আখতারুজ্জামান বাবু ও আমি কালুরঘাটে নতুন সেতুর দাবি জানিয়েছিলাম। সেখানে জাতির জনকের কন্যা ঘোষণা দিয়েছিলেন, কালুরঘাটে একটি নতুন সেতু করে দেবেন। এই প্রত্যাশা পূরণের জন্য মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছে। আমি আশা করবো আগামী এক বছরের মধ্যে কালুরঘাটে রেল সেতুর পাশাপাশি আরেকটি সড়ক সেতু যাতে দৃশ্যমান হয়। সেটি আমি কামনা করবো।’ বলেন মোছলেম উদ্দিন আহমদ।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম নগরে আমার নির্বাচনি এলাকার অনেক জায়গায় নগরের সেবা, সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য পৌঁছেনি। সেই সব এলাকার সেবা নিশ্চিত করার জন্য সিটি করপোরেশন ও মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আমরা আরো ব্যাপক ভূমিকা প্রত্যাশা করছি।

বক্তব্যের শেষের দিকে প্রবীণ রাজনীতিক মোছলেম উদ্দিন আহমদ বলেন, বোয়ালখালীতে একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল করার দীর্ঘদিনের আশা আমাদের। সেটা যেন আগামীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত দিয়ে বাস্তবায়িত হয়। তাহলে এলাকার বেকারদের কর্মসংস্থান হবে, আমাদের এলাকা অর্থনৈতিকভাবে আরো সমৃদ্ধ হবে।

এর আগে সোমবার বিকেলে চট্টগ্রাম-৮ আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ শপথ নেন। জাতীয় সংসদ ভবনে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তাকে শপথ বাক্য পাঠ করান।

শপথ অনুষ্ঠানে জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী, হুইপ মাহবুব আরা বেগম গিনি, হুইপ সামশুল হক চৌধুরী, হুইপ ইকবালুর রহিম, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ বি তাজুল ইসলাম, আবু রেজা মোহাম্মদ নেজানমুদ্দীন নদভী এমপি, ওয়াসিকা আয়শা খান, খালেদা খানম এমপি এবং চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় সংসদের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান শপথ অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন। এ সময় সংসদ সদস্যের নির্বাচনী এলাকার নেতাকর্মী ও সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সংসদে যোগ দিয়েই কালুরঘাট সেতু নিয়ে সরব মোছলেম উদ্দিন

সোমবার (২০ জানুয়ারি) বেলা ৩টায় স্পীকার ড. শিরীণ শারমিনের কক্ষে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েই সংসদের চলতি শশীতকালীন অধিবেশনে যোগ দেন চট্টগ্রাম-৮ আসনের নব নির্বাচিত সাংসদ মোছলেম উদ্দিন আহমেদ। যোগ দিয়েই সংসদে জীবনের প্রথম বক্তব্যে কালুরঘাট সেতু নিয়ে সরব ছিলেন মোছলেম উদ্দিন আহমেদ।প্রায় ৫ মিনিটের শুভেচ্ছা বক্তব্যে তিনি সৃষ্টিকর্তা, জাতির জনক এবং তাঁর কন্যা, চট্টগ্রাম-৮ আসনের জনগণের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশের পাশাপাশি নির্বাচনী এলাকার সামগ্রিক উন্নয়ন এবং কালুরঘাট সেতু নিয়ে সেখানকার জনপ্রত্যাশার কথা তুলে ধরেন। এসময় সংসদ নেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত ছিলেন।

Gepostet von একুশে পত্রিকা – Ekushey Patrika am Montag, 20. Januar 2020