বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬

আগুনে নিঃস্ব দেড় শতাধিক পরিবার

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, জানুয়ারি ২৪, ২০২০, ৫:৪৫ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানার শুলকবহর এলাকায় বস্তিতে আগুন লেগে দেড় শতাধিক পরিবারের বসতঘর পুড়ে গেছে। আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে সবগুলো ঘরের আসবাব ও মালামাল।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় ডেকোরেশন গলির শেষ মাথায় বাবু কলোনিতে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিট চেষ্টা চালিয়ে বিকেল ৩টার দিকে পুরোপুরি আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত বেবী বেগম বলেন, আগুন বলে চিৎকার শুনে দেখি, কলোনির লাকীর ঘরে দাউ দাউ করে জ্বলছে। এরপরই নয় বছরের মেয়েকে নিয়ে ঘর থেকে দ্রুত বাইরে চলে আসি। ঘরের সব জিনিস পুড়ে গেছে।

কলোনীর বাসিন্দা অটোরিকশাচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, আগুনের খবর শুনে দৌড়ে যাই। তবে মেয়েকে নিয়ে তাঁর স্ত্রী ঘর ছেড়ে বেরিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে। ঘরের সব জিনিস পুড়ে গেছে।

পাঁচলাইশ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আবু তালেব বলেন, আগুনে কেউ হতাহত না হলেও তাড়াহুড়া করে ঘর থেকে বের হতে গিয়ে অনেকের হাতে-পায়ে চোট লেগেছে। তাদের রেডক্রিসেন্টের মাধ্যমে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, কলোনিতে ঢোকার সড়ক সরু হওয়ায় ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি নিতে খুব বেগ পেতে হয়েছে। আবার পানির সহজ উৎসও ছিল না। টিনশেড কাঁচাঘর হওয়ায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। ৮ থেকে ১২টি হোসপাইপ দিয়ে আগুনের ওপর পানি ঢালা হয়েছে। দেড় শতাধিক পরিবারের ঘর পুড়ে গেছে। অগ্নিকাণ্ডের কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পুরো হিসাব বের করার চেষ্টা চলছে।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. কামাল হোসেন বলেন, আগুনে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে থাকবে জেলা প্রশাসন। তাদেরকে দুপুরে খাবার বিতরণ করা হয়েছে। বিকেলে তাদের জন্য শুকনো খাবার এবং কম্বল দেয়া হয়। ক্ষতিগ্রস্তদের সব ধরনের সহায়তা দেওয়া হবে। ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে প্রয়োজনে তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।