রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০, ১৫ চৈত্র ১৪২৬

রাজনীতি ভুলে করোনা মোকাবেলায় বিএনপিকে একযোগে কাজ করার আহ্বান তথ্যমন্ত্রীর

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, মার্চ ২০, ২০২০, ৩:১০ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম : রাজনীতি ভুলে করোনা মোকাবেলায় বিএনপিসহ সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

শুক্রবার (২০ মার্চ) বেলা ১২ টায় বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে এক মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাস পুরো বিশ্বব্যাপী সংক্রমিত হয়েছে। এটি সমগ্র বিশ্বব্যাপী আতংক তৈরি করেছে। এমনকি উন্নত দেশগুলোও এই দুর্যোগ মোকাবেলা করতে হিমশিম খাচ্ছে। তবে আশার কথা হচ্ছে, যেখান থেকে করোনার সূত্রপাত হয়েছে সেই চীনে তারা এটিকে নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়েছে ইতিমধ্যে। ভ্যাকসিন আবিস্কার করার ক্ষেত্রে কিছুটা অগ্রগতি হয়েছে বলে আমরা গণমাধ্যমে জানতে পেরেছি।

তিনি বলেন, পৃথিবীর ২০০ দেশের মধ্যে ১৬৭টির বেশী দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমিত হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও করোনা থেকে নিজেদের মুক্ত রাখতে পারেনি। ইউরোপের দেশগুলোতে কারিগরি দক্ষতা, মেডিকেল সাইন্স, আর্থিক সক্ষমতা- সবকিছু আমাদের চেয়ে বেশি। এরপরও তারা করোনা থেকে মুক্ত রাখতে পারেনি।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে নানা পদক্ষেপ নেয়ার ফলে পরিস্থিতি অনেক দেশের চেয়ে ভালো। এরপরও করোনাভাইরাস নিয়ে রাজনীতি করা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দলের কাছে অনুরোধ জানাবো, এটি বৈশ্বিক দুর্যোগ। এই সময় করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আমরা সবাই মিলে রাজনীতি ভুলে জনগণের পাশে দাঁড়াবো, এটিই আমাদের দায়িত্ব।

করোনাভাইরাস নিয়ে জনগণের আতঙ্ককে পুঁজি করে গুজব ছড়ানো হচ্ছে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা আগেও দেখেছি, যখনই জনগণের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয় সেই আতঙ্ককে পুঁজি করে একটি মহল জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়ায়। এবং গুজব রটিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করে আতঙ্ক বাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। এর সাথে রাজনৈতিক মদদও থাকে, আমরা অতীতে দেখেছি। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়।

তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ডাক্তার পরিচয় দিয়ে একটি ভয়েস রেকর্ড ছাড়া হয়েছে। ডাক্তার তার আত্মীয়দের সঙ্গে কথা বলছেন, সেটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেন আসবে? এটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়ার অর্থ হচ্ছে, জনগণের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি করা। কারা এই কাজগুলো করছে, তাদেরকে শনাক্ত করার জন্য সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান কাজ করছে। যারা এই ধরনের আতঙ্ক তৈরি করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিএনপির পক্ষ থেকে প্রতিদিন করোনা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, তারা প্রতিদিন ব্রিফিং করে বলে, সরকার কিছু করেনি, সরকার লুকাচ্ছে। অথচ প্রতিদিন সরকারের পক্ষ থেকে কী করা হচ্ছে, কতজন আক্রান্ত-শনাক্ত হয়েছে, কতজনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে, কতজন চিকিৎসাধীন আছেন সবকিছু প্রতিদিন বলা হচ্ছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী যেমন বলছেন, অন্যান্য জায়গা, বিভিন্ন দপ্তর থেকেও বলা হচ্ছে। সরকার অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে, দ্রুততার সাথে নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। মুজিববর্ষের সমস্ত অনুষ্ঠান স্থগিত করা হয়েছে। সরকারের নানা অনুষ্ঠান স্থগিত করা হয়েছে। আমাদের দলের বিভিন্ন কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে। একই সাথে কিছু নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

‘অথচ বিএনপি প্রতিদিন সংবাদ সম্মেলন করে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। বিএনপি যে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে, আর যারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটাচ্ছে দুটোর মধ্যে যোগসূত্র আছে। এর আগে ছেলেধরা আতঙ্ক ছড়িয়ে দেশে অস্থিরতা তৈরির চেষ্টা হয়েছিল। এখনও অস্থিরতা তৈরির চেষ্টা চলছে। সরকার এসব কঠোর হস্তে দমন করতে বদ্ধপরিকর।’ যোগ করেন তথ্যমন্ত্রী।

এর আগে সকাল সাড়ে ১১টায় তথ্যমন্ত্রী বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে পৌঁছলে মহাব্যবস্থাপক (জিএম) নিতাই কুমার ভট্টাচার্য তাঁকে স্বাগত জানান। মন্ত্রী চট্টগ্রাম কেন্দ্রে স্থাপিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান এবং গাছের ছাড়া রোপণ করেন।

এরপর মন্ত্রী বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে নতুন স্থাপিত হলরুমে মতবিনিময় সভায় যোগ দেন। এসময় বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের মহাব্যবস্থাপক নিতাই কুমার ভট্টাচার্য, অনুষ্ঠান প্রধান রুমানা শারমিন, বার্তা বিভাগের প্রধান মঈনউদ্দিন, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান কলিম সরওয়ার, একুশে পত্রিকার সম্পাদক আজাদ তালুকদারসহ বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। মন্ত্রী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিভিন্ন সমস্যা মনোযোগ দিয়ে শোনার চেষ্টা করেন।