বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

পটিয়ায় দুর্গম পাহাড়ের ২১৫ দিনমজুর পেল খাবার

প্রকাশিতঃ শনিবার, মার্চ ২৮, ২০২০, ৬:৫৩ অপরাহ্ণ


পটিয়া (চট্টগ্রাম) : করোনাভাইরাস নিয়ে সৃষ্ট অচলাবস্থায় কর্মহীন হয়ে পড়া পটিয়ার দুর্গম পাহাড়ি অঞ্চলের অর্ধশতাধিক পরিবারের ২১৫ জন দিনমজুর, কাঠুরে, রিকশাচালক ও অসহায় মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

শনিবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা কচুয়াই ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের চা বাগান এলাকায় প্রত্যেকটি ঘরে গিয়ে অসহায় মানুষের হাতে তুলে দেন আগামী দশ দিনের খাবার।

এছাড়া স্থানীয় স্বপ্ননগর বিদ্যানিকেতন চত্বরে স্থানীয় লোকজনদের করোনা বিষয়ক সামাজিক দূরত্ব বিষয়ে সচেতন করেন ইউএনও ফারহানা জাহান উপমা। উপস্থিত সবাইকে তিন ফুট দূরত্বে রেখে তাদের হাতে তুলে দেয়া হয় ত্রাণ সামগ্রী।

প্রত্যেককে ১০ কেজি চাল, সাথে ডাল, তেল, লবণ, আলু বিতরণ করা হয়। তারা মূলত দিনমজুর ও হোটেল রেস্টুরেন্টে লাকড়ি সরবরাহের কাজ করে থাকেন। করোনা-সংকটের কারণে প্রত্যেকেই ঘরে অবস্থান করছেন ও আয় না হওয়ায় কষ্টে আছেন।

পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা জানান, অর্ধশত পরিবারের ২১৫ জনের মাঝে খাবার তুলে দেয়া হয়েছে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে পটিয়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ৯শ’ ছিন্নমূল মানুষের মাঝে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহের কাজ শেষ হবে।

এসব খাদ্য সামগ্রী বিতরণের পর প্রয়োজন হলে আরো সহায়তা দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, স্বপ্ননগর বিদ্যানিকেতনের উদ্যোক্তা দ্রুব জ্যোতি হোড়, গণমাধ্যমকর্মী আহমদ উল্লাহ, নজরুল ইসলাম, স্থানীয় ইউপি মেম্বার কামাল উদ্দিন, মহিলা মেম্বার সেলিনা আক্তার, স্বপ্ননগর বিদ্যানিকেতনের প্রধান শিক্ষক সুজা আল মামুন, পটিয়া রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সমন্বয়ক নয়ন শর্মা প্রমুখ।