সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ছেলের চিকিৎসার জন্য থানায় গিয়ে বাবার কান্না, অতঃপর…

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২, ২০২০, ৭:৪৮ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম : সাতদিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত নগরের হালিশহরের আরমান (১৬)। কিন্তু ডাক্তার তাকে দেখতে রাজি নন! তাকে গ্রহণ করেনি চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালও। এরপর বৃহস্পতিবার অসুস্থ ছেলেকে নিয়ে নগরের কোতোয়ালী থানায় যান তার বাবা।

থানার পুলিশ সদস্যরা প্রথমে ছেলেটির বাবাকে বুঝানোর চেষ্টা করেন থানায় ডাক্তার নেই, এখানে চিকিৎসা হয় না। কিন্তু তিনি নারাজ। এক পর্যায়ে হাউমাউ করে কাঁদতে শুরু করেন ছেলের বাবা।

বিষয়টি চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের (সিএমপি) বিশেষ শাখার উপকমিশনার মো. আব্দুল ওয়ারীশ খানকে অবহিত করেন কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন। এরপর পুলিশ কর্মকর্তা মো. আব্দুল ওয়ারীশ খান বিষয়টি নিয়ে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ও আরো কয়েকটি জায়গায় কথা বলেন। এতে কাজ হয়, অবশেষে ছেলেটিকে দেখতে রাজি হন চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের ডাক্তাররা।

তবে চিকিৎসক শর্ত দেন, রোগী নিয়ে যেতে হবে পুলিশকেই। পরে কোতোয়ালী থানার এসআই আজহার নিজেই রোগীকে নিয়ে যায়। রোগীর যাবতীয় পরীক্ষা করান নিজে দাঁড়িয়েই। আগের চেয়ে ভালো আছে আরমান। বর্তমানে হোম কোয়ারান্টাইনে রাখা হয়েছে তাকে।

জানতে চাইলে কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন একুশে পত্রিকাকে বলেন, ওয়ারীশ স্যারের প্রচেষ্টায় আরমানের দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পেরেছি আমরা। এভাবে নিরবে নিভৃতে সব ভালো কাজে স্যার সবসময় এগিয়ে আসেন। অসুস্থ আরমান এবার এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে বলেও জানান ওসি।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাস আতঙ্কের মধ্যে চট্টগ্রামে প্রায় থমকে গেছে চিকিৎসা ব্যবস্থা। সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালগুলোয় সতর্কতার সাথে সীমিতভাবে চিকিৎসা কার্যক্রম চালু রয়েছে।

প্রায় সব চিকিৎসক তাদের ব্যক্তিগত চেম্বারগুলো বন্ধ রেখেছেন। শহরের যেসব স্থানে চিকিৎসকরা ব্যক্তিগত চেম্বারে রোগী দেখতেন, সেখানে ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে ‘চেম্বার বন্ধ’র নোটিশ। এতে চরম বিপাকে পড়েছেন বলে জানিয়েছেন অন্যান্য রোগে আক্রান্ত বেশ কজন রোগী।