শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৪ আশ্বিন ১৪২৭

বঙ্গবন্ধুকে হারানোর দিন স্মরণে ইউআইটিএস

প্রকাশিতঃ শনিবার, আগস্ট ১৫, ২০২০, ৬:১৫ অপরাহ্ণ


ঢাকা : বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হারানোর সেই দিন নানা কর্মসূচির মাধ্যমে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেছে ইউনিভার্সিটি অব ইরফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস (ইউআইটিএস)।

১৯৭৫ সালের আজকের এই দিনে সেনাবাহিনীর একদল কর্মকর্তা ও সৈনিকের হাতে সপরিবারে জীবন দিতে হয় বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের নেতা ও তৎকালীন রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবকে।

সপরিবারে জাতির জনকের হত্যাকাণ্ডের এই দিন জাতীয় শোক দিবস।

শনিবার সকাল ১১টায় রাজধানীস্থ ইউআইটিএস’র নিজস্ব ক্যাম্পাসে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে আলোচনা সভা এবং দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সোলায়মান।

অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, জাতীয় শোককে শক্তিতে পরিণত করতে হবে। ৭৫-এর ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যাযজ্ঞের উদ্দেশ্য শুধু রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখলই ছিল না, এর পেছনে ছিল বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার গতিকে প্রতিরোধ করাসহ নানা দূরভিসন্ধি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, কিন্তু ভাগ্যক্রমে বেঁচে যাওয়া বঙ্গবন্ধু তনয়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা তাঁর অসমাপ্ত কাজগুলো করে দেশকে বিশ্বের দরবারে মর্যাদার আসনে সমাসীন করেছেন।

আলোচনা সভায় ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন ইউআইটিএস বোর্ড অব ট্রাস্টিজ ও পিএইচপি ফ্যামিলির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, সমাজসেবায় একুশে পদকপ্রাপ্ত আলহাজ্ব সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

আলোচনায় সভায় অংশগ্রহণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের উপদেষ্টা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্যার এ এফ রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খান, ইউআইটিএস-এর কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সিরাজ উদ্দীন আহমেদ, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক আ ন ম শরীফ।

আরও অংশ নেন ইউআইটিএস বোর্ড অব ট্রাস্টিজের লিগ্যাল এডভাইজার এডভোকেট ড. মো. আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া, ইউআইটিএস-এর সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. মাজহারুল হক, লিবারেল আর্টস এন্ড সোস্যাল সায়েন্সেস অনুষদের ডিন সৈয়দা আফসানা ফেরদৌসী ও প্রক্টর মো. তারিকুল ইসলাম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ কামরুল হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

শোক দিবস উপলক্ষে সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ক্যাম্পাসে খতমে কুরআন, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

এর আগে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে ক্যাম্পাসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন (অর্ধনমিত), কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ করেন সংশ্লিষ্টরা।

এছাড়া বঙ্গবন্ধুর জীবনীর ওপর প্রবন্ধ ও কবিতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট এবং ফেসবুক পেজে প্রকাশ করাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।