বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

অতিরিক্ত আমে হতে পারে শরীরের ক্ষতি!

প্রকাশিতঃ বুধবার, জুলাই ৩, ২০১৯, ৮:১৮ অপরাহ্ণ

ফিচার ডেস্কঃ ফলের রাজা বলা হয় আমকে। মিষ্টি গন্ধ ও স্বাদেই-এর নিজস্বতার পরিচয়। গরমে বাইরে থেকে ফিরে এক টুকরো পাকা আম খেলে তা শরীরে প্রশান্তি আনে। কিন্তু খেতে মিষ্টি বলে বা প্রশান্তির জন্য হলেও আম বেশি খাওয়া উচিত নয়। বেশি আম খেলে উপকারের থেকে অপকারই বেশি হতে পারে!

পাকা আমে রয়েছে ভিটামিন সি, ভিটামিন বি, থায়ামিন, রিবোফ্লাভিন, ভিটামিন এ বা বিটা ক্যারোটিন। আবার রয়েছে উচ্চমাত্রার চিনি, কার্বোহাইড্রেড ও গ্লাইসেমিক। পাশাপাশি পাকা আমে ফিনোলিকস জাতীয় উপাদান থাকার কারণে এ ফলটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্টেরও ভালো উৎস। কিন্তু এক গবেষণায় চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, পাকা আম খাওয়া ভালো, তবে পরিমাণে বেশি নয়। নিচে চিকিৎসকদের সে মতগুলো তুলে ধরা হলো।

পাকা আম পরিমাণে বেশি খেলে যা হয়

পাকা আমে চিনির পরিমাণ অত্যধিক থাকে বলে শরীর খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায় বহুগুণ।

যাদের সুগারের সমস্যা আছে, আম তাদের রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। ফলে সুগারও বেড়ে যায়।

পাকা আম অ্যাজমা বাড়িয়ে দেয়।

কিডনির রোগীদের সংক্রমণ বাড়িয়ে দেয়।

ওজন বেড়ে যায়।

রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়ে।

আমে বিদ্যমান ফিটোকেমিকেল কম্পাউন্ড তথা গ্যালিক অ্যাসিড, ম্যাঙ্গফেরিন, কোয়ার্নেটিন এবং টেনিন বা কষজাতীয় উপাদান শরীরের ক্ষতি করে।

ডায়েরিয়া হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

যাদের অ্যালার্জির সমস্যা আছে, তাদের অ্যালার্জির পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়।

চুলকানির মাত্রা বাড়িয়ে দেয়।

পেটে গ্যাসের সৃষ্টি করে।

আর্থ্রাইটিস ও সাইনোসাটিসের রোগীদের রোগকে বাড়িয়ে দেয়।

হজমে গোলযোগ সৃষ্টি করে।