রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

রাঙ্গুনিয়ায় অস্ত্র নিয়ে আদিবাসী যুবকসহ দু’জন গ্রেফতার

প্রকাশিতঃ ২৭ এপ্রিল ২০২১ | ৩:১৩ অপরাহ্ন

 

 

রাঙ্গুনিয়া : রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের মহিষাবাম এলাকা থেকে অস্ত্রসহ দুই সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে রাঙ্গুনিয়া থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন মো. হারুন (৬০) ও ওয়াইপ্রু মার্মা (২৬)।

মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) ভোর ৪ টায় পদুয়া ইউনিয়নের মহিষাবাম গ্রামের আজিমনগর এলাকা থেকে তাদের আটক করে পুলিশে দেওয়া হয়।

এর আগে সোমবার দিনগত রাত ১ টার দিকে অস্ত্র নিয়ে ঘোরাঘুরি করার সময় স্থানীয় জনতা তাদের ঘেরাও করে পুলিশে খবর দেয়। পরে ভোর সাড়ে ৪ টার দিকে পুলিশ এসে তাদের থানায় নিয়ে যায়।

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, পদুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম প্রকাশ বদি মেম্বারের মহিষের খামারে লোকদেখানো রাখালের কাজ করলেও প্রকৃতপক্ষে বদি মেম্বারের নাম ব্যবহার করে দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় তারা নিরীহ মানুষদের জিম্মি ও ছিনতাই-চাঁদাবাজি করে আসছিল।

এলাকাবাসী জানান, বান্দরবান ও পটিয়া-বোয়ালখালী সীমান্ত দিয়ে গ্রেফতার দুই অস্ত্রবাজসহ রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় একটি অস্ত্র ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট মহিষাবাম পাহাড়ি এলাকায় অস্ত্রের মজুদ ও প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিকিকিনি করে আসছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে ব্যাপক অস্ত্রের সন্ধান পাওয়া যেতে পারে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

তবে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম ওরফে বদি মেম্বার বলেছেন, তিনি নিজেই অস্ত্রসহ তাদেরকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন। তাদের সাথে তার কোনো সম্পর্ক নেই। তার কোনো মহিষের খামার নেই বলেও দাবি করেন বদি মেম্বার।

রাঙ্গুনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহাবুব মিল্কি একুশে পত্রিকাকে বলেন, ‌‘গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে যে অস্ত্রটি আমরা পেয়েছি সেটাকে গাদা বন্দুক বলা হয়। স্থানীয় জনগণ আজিমের দোকান থেকে প্রথমে তাদের আটক করে। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে জনগণ তাদেরকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। দুজনের বিরুদ্ধে আস্ত্র আইনে মামলা করা হচ্ছে। আজই তাদের আদালতে পাঠানো হবে।’