২৫ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬, সোমবার

‘শিক্ষার্থীর মায়ের মোবাইলেই উপবৃত্তির টাকা’

প্রকাশিতঃ শনিবার, মার্চ ১৬, ২০১৯, ৯:৩২ অপরাহ্ণ

এম সামুন হোসেন : শিক্ষার্থীর মায়ের মোবাইলে ম্যাসেজের মাধ্যমে উপবৃত্তির টাকা পৌঁছে যায় বলে মন্তব্য করেছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো.আকরাম আল-হোসেন।

শনিবার (১৬ মার্চ) নগরের আইস ফ্যাক্টরি রোডস্থ পিটিআই অডিটরিয়ামে আয়োজিত দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মো.আকরাম আল-হোসেন বলেন, সারাদেশে ১ কোটি ৩৭ লক্ষ সুবিধাভোগী শিক্ষার্থীর মায়েরা ১ কোটি ২৩ লক্ষ মোবাইল একাউন্টের মাধ্যমে সরাসরি রূপালী ব্যাংক শিওর ক্যাশে উপবৃত্তির টাকা পেয়ে যাচ্ছেন। ঝরেপড়া রোধ, স্কুলে শতভাগ ভর্তি নিশ্চিতকরণ, মানসম্মত শিক্ষা বাস্তবায়ন ও শিক্ষার হার বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য একটি প্রকল্প নিয়ে এই উপবৃত্তি চালু করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, উপবৃত্তি ডিজিটালাইজড করার ফলে কম্পিউটারে একটি ডাটা বেইজ থেকে যায়। এই প্রকল্পে বিদেশি কোনো অনুদান নেই। শতভাগ উপবৃত্তি প্রধানমন্ত্রীর অবদান। এই প্রকল্প এসডিজি’র ৪ নং গোল অর্জনের ক্ষেত্রে অনন্য ভূমিকা রাখছে। সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের পাশাপাশি এলাকার জনপ্রতিনিধিদেরকে সরকারের উপবৃত্তি প্রকল্পের বিষয়টি অবহিত করতে হবে। পাশাপাশি স্কুলে শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদেরকে নিজের সন্তান মনে করে বাস্তবসম্মত ও যুগোপযোগী পাঠদানে শিক্ষকদের আন্তরিক হতে হবে।

সরকারের উপবৃত্তি প্রকল্প পরিচালক মো. ইউসুফ আলীর সভাপতিত্বে ও সহকারী পরিচালক মোছাম্মৎ তাশমিন শহীদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এ এফ এম মনজুর কাদির, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (উন্নয়ন) নেছার আহমদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আবু হাসান সিদ্দিক, প্রাথমিক শিক্ষা চট্টগ্রাম বিভাগের উপ-পরিচালক মো. সুলতান মিয়া, রূপালী ব্যাংক লিমিটেড চট্টগ্রাম বিভাগের জিএম মো. জাহাঙ্গীর ও প্রগতি সিস্টেম লিমিটেডের নির্বাহী কর্মকর্তা ড. শাহদত খান।

প্রশিক্ষণ কর্মশালায় মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে উপবৃত্তি প্রকল্পের সারসংক্ষেপ তুলে ধরেন উপবৃত্তি প্রকল্প পরিচালক মো. ইউসুফ আলী।

একুশে/এসএম/এসসি