২৩ মে ২০১৯, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, বুধবার

চবিতে ছাত্রলীগের দুই পক্ষে সংঘর্ষ, আহত ৩

প্রকাশিতঃ রবিবার, মার্চ ৩১, ২০১৯, ৩:৫৫ অপরাহ্ণ

চবি প্রতিনিধি : ফেইসবুকের স্ট্যাটাসে মন্তব্যকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্রলীগের দুপক্ষে সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছে অন্তত তিনজন। রোববার দুপুরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে জড়ানো পক্ষ দুটি শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের অনুসারী বিজয় ও সিএফসি গ্রুপ হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত।

আহতরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের (১৬-১৭)শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী জোবায়ের আহাম্মদ, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃত বিভাগের (১৮-১৯) শিক্ষাবর্ষের মোঃ তনয় এবং নৃবিজ্ঞান বিভাগের (১৭-১৮ )শিক্ষাবর্ষের কাজল দাশ। আহত সবাই বিজয় গ্রুপের নেতাকর্মী।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক ইতিহাস ও সংস্কৃত বিভাগের (১৮-১৯) শিক্ষাবর্ষের মো. তনয় নামের এক শিক্ষার্থী একই বিভাগের আরেক শিক্ষার্থীর ফেসবুক পোস্টে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্য করে। এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে ব্যক্তিগত শত্রুতা থেকে বিষয়টি সহিংসতায় পৌঁছায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার এলাকায় বিজয় গ্রুপের তনয়কে বেধড়ক মারধর করে সিএফসির নেতাকর্মীরা। এ খবর বিজয় গ্রুপে ছড়িয়ে পড়লে বিশ্ববিদ্যালয়ের আব্দুর রব হলের সামনে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আব্দুর রব হলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার পর দুই গ্রুপের নেতাকর্মীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ আমানত ও সোহারওয়ার্দী হলের সামনে অবস্থান করে। এ সময় বিজয় গ্রুপের নেতাকর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সোহরাওয়ার্দী হলের সামনে এবং সিএফসির কর্মীরা শাহ আমানত হলের সামনে অবস্থান নেয়। পরে দুই পক্ষে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আখতারুজ্জামান একুশে পত্রিকাকে বলেন, দুপুর একটার দিকে শহীদ মিনার এলাকায় ছাত্রলীগের দুপক্ষে সংঘর্ষ হয়। পরে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছালে উভয় গ্রুপ সোহরাওয়ার্দী ও শাহ আমানত হলের সামনে অবস্থান নেয়। এখন পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।