সোমবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

পরকিয়া বাদ দিলে আমাদের সিনেমা দাঁড়িয়ে যাবে : অমিতাভ রেজা

প্রথম আলো ন্যারেটিভ তৈরি করছে বলেও অভিযোগ

প্রকাশিতঃ শনিবার, অক্টোবর ৫, ২০১৯, ৫:০৭ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম : প্রথম আলো ন্যারেটিভ তৈরি করছে অভিযোগ করে বিশিষ্ট চলচ্চিত্র নির্মাতা অমিতাভ রেজা বলেছেন, পাশের বাসার বউকে আমাদের ভালো লাগে বেশি। আমাদের পায়ের নিচের মাটি আমরা দেখি না। পরকীয়া বাদ দিয়ে আমরা যদি নিজের গল্প হাজির করতে পারি তাহলে আমাদের সিনেমা দাঁড়িয়ে যাবে।

শনিবার দুুপুরে নগরের ফিনলে স্কয়ারে সিনেপ্লেক্স ‘সিলভার স্ক্রিন’ আয়োজিত ‘বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্প এবং বিশ্বায়নের চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক সেমিনারে অমিতাভ রেজা একথা বলেন। এসময় মঞ্চে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পের পথে অন্তরায় প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে অমিতাভ রেজা বলেন, আমরা প্রতিনিয়ত ন্যারেটিভ তৈরি করছি। আমরা যে ন্যারেটিভটা তৈরি করছি সেটা আমাদের নয়। অদ্ভুত এক ন্যারেটিভ। আমি উদাহরণ দিই- প্রথম আলোর গত পাঁচদিনের বিনোদনপাতা খুলে দেখুন-সবচেয়ে আকর্ষণীয় কোনো ছবিটা হচ্ছে ভারতের কোনো নায়িকার। আজকে যদি দেখেন আজকেও তাই দেখবেন। প্রিয়াঙ্কা চোপড়া মা হতে চান-এই খবর দিয়ে আমি কী করবো। উনি মা হবে না অন্যকিছু হবে এটা দিয়ে আমি কী করবো সেটা। আমার কিছু যায় আসে না। এর চেয়ে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বাংলাদেশের দুইটি ছেলের আমেরিকায় চলচ্চিত্রে সাফল্য।

অমিতাভ রেজা বলেন, প্রবলেমটা হচ্ছে ওদের ছবিটা তো সুন্দর। বুঝেন না কেন, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বা তাদের নায়ক-নায়িকারা সুন্দর দেখতে। ওদের ছবিটা তো সুন্দর করে তোলা হয়। আমাদের নায়ক-নায়িকাদের ছবি এত সুন্দর করে তোলা হয় না। কারণ আমাদের ফটোগ্রাফাররা এত প্রফেশনালি যেতে পারে না, অত পয়সা খরচ করতে পারে না। ওদের ফিল্মফেয়ারের বিখ্যাত প্রফেশনাল ফটোগ্রাফাররা ছবি তোলে। ওই ছবিটি যখন একই সাইজে আপনি পাশাপাশি রাখেন আপনার চোখ তো ওখানে যাবে।

আপনার ন্যারেটিভ তো ওটা! তো ওই ন্যারেটিভ দিয়ে কী হবে। তার মানে আমরা অদ্ভুত ন্যারেটিভ তৈরি করছি, যে ন্যারেটিভটা মনে করছি আমাদের এখানে কালচার নেই, আমাদের এখানে গল্প নেই। কিন্তু সেই তুলনায় আমাদের অনেক গল্প। আমাদের টেলিভিশনে যে সব নাটক হাজির হয় সেগুলোর গল্প তো অনেক শক্তিশালী। সুতরাং আমাদের ভয় কীসের! আমাদের ভয় হচ্ছে আমাদের পায়ের নিচের যে মাটিটা সেটাকে আমরা দেখি না; আমাদের পাশের বাসার বউকে ভালো লাগে বেশি। এটাই খুব স্বাভাবিক ঘটনা। বলেন বরেণ্য এই চলচ্চিত্র নির্মাতা।

অমিতাভ রেজা মনে করেন এই পরকিয়াটা বাদ দিয়ে যদি আমরা নিজের গল্পটা হাজির করতে পারি তাহলে আমাদের সিনেমা দাঁড়িয়ে যাবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক আবুল মোমেন। আরো বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য ওয়াশেকা আয়েশা খান, দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক, দৈনিক পূর্বকোণ সম্পাদক ডা. রমিজ উদ্দিন, আরটিভির প্রধান নির্বাহী আশিকুর রহমান, প্রথম আলোর সহকারী সম্পাদক ওমর কায়সার। কবি-সাংবাদিক কামরুল হাসান বাদলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আয়োজক প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার, দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশ সম্পাদক রুশো মাহমুদ।