বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

রাষ্ট্রদ্রোহের পর ডা. জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে এবার চাঁদাবাজির মামলা

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৬, ২০১৮, ৩:০২ অপরাহ্ণ

ঢাকাঃ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলার পর এবার চাঁদাবাজির মামলায় দায়ের হয়েছে। ঢাকার আশুলিয়ার পাথালিয়ায় জমি বিক্রিতে বাধ্য করার চেষ্টা এবং এক কোটি টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ এনে সোমবার রাতে মামলাটি হয়। এতে তিনি সহ মোট চারজনকে আসামী করা হয়েছে।

আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিজাউল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মানিকগঞ্জের মোহাম্মদ আলী নামে এক ব্যক্তি বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

মামলার এজাহারে জানা যায়, ২০০৩ সালেমামলার বাদী মোহাম্মদ আলী আরও দুজন সহ পাথালিয়া মৌজার প্রায় চার একর ২৪ শতাংশ জমি ক্রয় করেন। ওই জমি নেওয়ার জন্য জাফরুল্লাহ ও তার লোকজন তাকে নানাভাবে তাদের ‘ভয়ভীতি’দেখিয়ে আসছিল।নাম মাত্র মূল্যে বিক্রির জন্য চাপ দেওয়ার পাশাপাশি জীবননাশের হুমকি পর্যন্ত দিয়েছে।এসব ঘটনায় সাভার ও আশুলিয়া থানায় একাধিক জিডি করেন আলী।

সর্বশেষ গত ১৪ অক্টোবর সকালে মোহাম্মদ আলী ও তার শরিক আনিছুর রহমান জমিতে থাকাবস্থায় জাফরুল্লাহর সহযোগী দেলোয়ার হোসেন (৫৭), সাইফুল ইসলাম শিশির (৫৫) এবং আওলাদ হোসেন (৪৮)সহ ৩/৪জন জমিতে ঢুকে জানায়, তারা জাফরুল্লাহ নির্দেশে এসেছে।

এসময় তারা জমি তাদের কাছে বিক্রির জন্য বলে। সেই সঙ্গে বলে, এই জমি গণবিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য পূর্বে না দেওয়ার কারণে তাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। এজন্য এক কোটি টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় তারা হুমকি দেয় এবং জমির কাঁটাতারের বেষ্টনি, সাইনবোর্ড ও একটি গেইট ভাংচুর করে।
প্রসঙ্গত, বেসরকারী একটি টেলিভিশন চ্যানেলে সেনাবাহিনীর প্রধানকে নিয়েগণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহর‘অসত্য’ ও ‘ভিত্তিহীন’ বক্তব্যের প্রেক্ষিতে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট থানায় জিডি করে সেনা সদর। ডিবির তদন্ত শেষে জিডিটি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় পরিণত হয়।

একুশে পত্রিকা/আরএইচ