সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২ পৌষ ১৪২৬

ক্রাইস্টচার্চে জুমার সময় মুসলিমদের পাহারায় বাইকার গ্যাং

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, মার্চ ২২, ২০১৯, ৯:১৬ পূর্বাহ্ণ


নিউজিল্যান্ড: নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দু’টি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় স্তব্ধ পুরো বিশ্ব। উঠেছে নিন্দার ঝড়। এ হামলায় অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন প্রায় অর্ধশত মানুষ।

শুক্রবার নৃশংস এই হত্যাযজ্ঞের এক সপ্তাহ পূরণ হচ্ছে।
হত্যাযজ্ঞের এক সপ্তাহ পর প্রথমবারের মতো শুক্রবার আল-নূর ও লিনউড মসজিদে জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। আর মসজিদ দুটিতে যখন মুসল্লিরা নামাজ পড়বেন, তখন মসজিদের বাইরে নিরাপত্তা দেবে স্থানীয় তিনটি বাইকার গ্যাং।

স্থানীয় বাইকার গ্যাং দ্য মঙ্গরেল মব, কিং কোবরা ও দ্য ব্ল্যাক পাওয়ার নামের তিনটি বাইকার গ্যাং দেশটির সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়ের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা সহায়তা দেয়ার অঙ্গীকার করেছে।

এ ব্যাপারে দ্য মঙ্গরেল মবের প্রেসিডেন্ট সনি ফাতু জুমার নামাজের সময় মসজিদের বাইরে নিরাপত্তা দেয়ার প্রস্তাব দিয়ে বলেন, আমাদের মুসলিম ভাই এবং বোনরা যত দিন পর্যন্ত মনে করবেন তাদের নিরাপত্তা এবং সহায়তা প্রয়োজন, আমরা ততদিন সহায়তা দেব।

ফাতু বলেন, কোনো ধরনের ভয়ভীতি ছাড়াই মসজিদে নামাজ আদায়ের সময় আমরা নিরাপত্তা দিতে পারবো কি-না, সেটি প্রশ্ন হিসেবে দেখা দিয়েছিল।

‘অবশ্যই আমরা নিরাপত্তা দিতে পারবো। এটা নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। আমরা জুমার নামাজের সময় উপযুক্ত পোশাক পরিধান করবো। ’

‘আমাদের হাতে কোনো অস্ত্র থাকবে না। আমরা মসজিদের ভেতরের দরজার কাছে শান্তিপূর্ণভাবে নিরাপত্তা দেব। যাতে মুসলিম সম্প্রদায়ের সদস্যরা স্বস্তিতে নামাজ পড়তে পারেন। ’

মহান বিজয় দিবস ২০১৯ উপলক্ষে একুশে পত্রিকা কর্তৃক একটি বিশেষ সংখ্যা প্রকাশের উদ্যেগকে স্বাগত জানাই। বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের পক্ষ হতে উক্ত প্রকাশনার সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানাই-

বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা

একটি সুখী, সমৃদ্ধ, ক্ষুধা ও দারিদ্র স্বপ্নীল ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার এবং সন্ত্রাসমুক্ত পরিবেশ প্রতিষ্টার প্রত্যয় নিয়ে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ নিজস্ব উন্নয়ন কর্মসূচি এবং ২৮ টি ন্যস্ত বিভাগের বিভাগীয় কার্যক্রমের সমন্বয় সাধনসহ নিম্নবর্ণিত কার্যদি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছেঃ

১) শিক্ষা
২) স্বাস্থ্য সেবা
৩) কৃষি
৪) মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ
৫) ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প
৬) যোগাযোগ
৭) পানীয় জল ও স্যানিটেশন
৮) সমবায় ও সমাজ সেবা কার্যক্রম
৯) ক্রীড়া ও সংস্কৃতি কর্মকান্ড
১০) স্থানীয় পর্যটন
১১) আইসিটি সেক্টর উন্নয়ন এবং
১২) মানব সম্পদ উন্নয়ন ইত্যাদি।

একটি উন্নত, সমৃদ্ধ, আধুনিক ও সম্প্রীতিত মডেল জেলা হিসেবে বান্দরবানকে গড়ে তোলাই হলো আমাদের দৃঢ় অঙ্গীকার-

ক্য শৈ হ্লা
চেয়ারম্যান
বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ
বান্দরবানান