বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

ওআইসির সভায় ‘ইসলামভীতি’ দূর করার আহ্বান বাংলাদেশের

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, মার্চ ২২, ২০১৯, ১১:৩০ অপরাহ্ণ


ইস্তাস্বুল: ক্রমবর্ধমান ‘ইসলামোফোবিয়া’ (ইসলামভীতি) এবং মুসলিম অনাবাসী এবং অভিবাসীদের প্রতি ‘জেনোফোবিয়া’ (বিদেশি লোক বা বিদেশি কোনো কিছু সম্বন্ধে ভয়) দূর করতে ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থাকে (ওআইসি) কার্যকর উদ্যোগ নেওয়ার আহবান জানিয়েছে বাংলাদেশ।

আজ শুক্রবার তুরস্কের ইস্তানবুলে ইসলামিক সম্মেলন সংস্থার (ওআইসি) নির্বাহী কমিটির মন্ত্রী পর্যায়ের ‘ওপেন এন্ডেড’ সভায় অংশ নিয়ে ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এ আহ্বান জানান।

আন্তধর্মীয় সম্প্রীতি ছড়িয়ে দিতে সবাইকে সন্ত্রাসবাদের বিপক্ষে অবস্থান নেওয়ার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি। বাংলাদেশে সব ধর্মের অনুসারীরা একসঙ্গে শান্তিতে বসবাস করছে বলেও বৈঠকে উল্লেখ করেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ।

ভূমিমন্ত্রী জাতিসংঘের অধীনে ওআইসির সহযোগিতা বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন বলেও আঙ্কারাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস জানিয়েছে। সন্ত্রাসবাদ, ইসলামভীতি ও মুসলিমদের বিরুদ্ধে ঘৃণা দূর করতে বাস্তব ভিত্তিক পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানানোর মধ্য দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের এ জরুরি বৈঠক শেষ হয়।

সম্প্রতি নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মুসলিমদের ওপর হামলার প্রেক্ষিতে এ জরুরি বৈঠকের আয়োজন করে ওআইসি। ওই হামলায় ৫০ জন নিহত হয়।

ওআইসি সম্মেলনের বর্তমান সভাপতি হিসেবে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে ওআইসি মহাসচিব ড. ইউসুফ আল ওথাইমিন উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও তুর্কি প্রধানমন্ত্রী রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের আমন্ত্রণে বৈঠকে বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশ নেন নিউজিল্যান্ডের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইন্সটন পিটারস।

ভূমিমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (আন্তর্জাতিক সংস্থা) এএফএম গাউসুল আজম সরকার, তুরস্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম আল্লামা সিদ্দিকী, সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের উপ-মিশন প্রধান এবং ওআইসিতে বাংলাদেশের উপ-স্থায়ী প্রতিনিধি ড. মো. নজরুল ইসলাম এবং ইস্তাম্বুলে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম অংশ নেন।