মঙ্গলবার, ৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭

‘বেতন না দিলেও শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাসের বাইরে রাখা যাবে না’

প্রকাশিতঃ বুধবার, জুলাই ২৯, ২০২০, ৩:০০ অপরাহ্ণ


ঢাকা : বৈশ্বিক মহামারি করোনাকালীন দুর্যোগের সময়ে রাজধানী উত্তরার ইংলিশ মিডিয়াম ডিপিএসএস (দিল্লি পাবলিক) স্কুলে টিউশন ফি না দেয়ার কারণে শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাসের বাইরে রাখা যাবে না মর্মে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগের চেম্বারজজ আদালত।

একইসঙ্গে আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চ বিষয়টি শুনানির জন্য পাঠানো হয়েছে। ১৬ আগস্ট নিয়মিত বেঞ্চে এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানি হবে।

আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার মোহাম্মদ ওমর ফারুক।

স্কুল কর্তৃপক্ষের করা আবেদন শুনানি নিয়ে বুধবার (২৯ জুলাই) আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নুরুজ্জামানের চেম্বার জজ আদালত এ আদেশ দেন। আদালতে স্কুল কর্তৃপক্ষের আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট এএম আমিন উদ্দিন, ব্যারিস্টার আশরাফুজ্জান ও মোহাম্মদ ওমর ফারুক।

এর আগে গত ১৫ জুলাই টিউশন ফি পরিশোধ করতে না পারলেও কোনো শিক্ষার্থীকে অনলাইন ক্লাসের বাইরে রাখা যাবে না মর্মে আদেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে বেসরকারি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের টিউশন ফি ৫০ শতাংশ কমানো এবং ক্লাসের পরীক্ষাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালকের (ডিজির) কাছে করা আবেদন সাত দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দেন আদালত।

এ সংক্রান্ত এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল বেঞ্চ ওই আদেশ দেন। আদালতে ওই দিন রিটের পক্ষে শুনানি করেছিলেন ব্যারিস্টার মোহাম্মদ ওমর ফারুক। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

এরপর ওই আদেশের বিরুদ্ধে স্কুল কর্তৃপক্ষ আপিল আবেদন করেন। ওই আপিলের শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ বহাল রাখেন চেম্বার জজ আদালত।

ওই দিন ব্যারিস্টার মোহাম্মদ ওমর ফারুক বলেছিলেন, রাজধানী উত্তরার ইংলিশ মিডিয়াম ডিপিএসএসটিএস (দিল্লি পাবলিক) স্কুলের টিউশন ফি ৫০ শতাংশ কমানোর দাবিতে শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালকের (ডিজির) কাছে আবেদন করেন ওই স্কুলের এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক মো. কামরুজ্জামান।

অভিভাবকের আবেদনের বিষয়ে শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালকের (ডিজির) কাছ থেকে কোনো সিদ্ধান্ত না আসায় গত ১২ জুলাই হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে অভিভাবক মো. কামরুজ্জামানের পক্ষে রিটটি করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মোহাম্মদ ওমর ফারুক।

রিটে টিউশন ফি না দেয়ার কারণে শিক্ষার্থীকে অনলাইনে ক্লাস থেকে বঞ্চিত না করার নির্দেশনা চাওয়া হয়। রিটে বিবাদী করা হয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) ও ডিপিএসএসটিএস স্কুল কর্তৃপক্ষকে। ওই রিটের শুনানি নিয়ে এই আদেশ দেন।