বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

‘রবিউল আউওয়াল মাসে মাহফিলের ধুম পড়ে, কিন্তু রাসুল (স.) এর আদর্শ অনুসরণ হয় না’

উত্তর পাঠানটুলি ওয়ার্ড সমাজ কল্যাণ পরিষদের ব্যতিক্রমী আয়োজন

প্রকাশিতঃ Sunday, October 31, 2021, 11:57 am

একুশে প্রতিবেদক : পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগরের ২৩ নং উত্তর পাঠানটুলি ওয়ার্ড সমাজ কল্যাণ পরিষদ আয়োজিত এক ওয়াজ মাহফিলে বক্তারা বলেছেন, ‘হজরত আদম (আ.) যখন মাটিতে মিশ্রিত ছিলেন তখন আল্লাহর দরবারে শেষ নবী হিসেবে লিপিবদ্ধ ছিলেন নবী মুহাম্মদ (স.)। ঈদে মিলাদুন্নবীর অর্থ নবীর জন্মদিনের আনন্দোৎসব। পৃথিবীর যে কোনো মানুষের মৃত্যুই তার পরিবার, সমাজ ও দেশের জন্য বিরাট শূন্যতা সৃষ্টি করে। কিন্তু মহানবী (স.) এর মৃত্যু মানবসমাজ ও সভ্যতার কোনো পর্যায়ে শূন্যতার সৃষ্টি করেনি। যদিও তাঁর মৃত্যুর চেয়ে অধিক বেদনাদায়ক কোনো বিষয় উম্মতের জন্য হতে পারে না। তিনি প্রেরিত হয়েছিলেন সমগ্র পৃথিবীর জন্য আল্লাহর রহমত হিসেবে। রবিউল আউওয়াল মাস এলে মিলাদ মাহফিল আয়োজনের ধুম পড়ে যায়। কিন্তু রাসুল (স.) যে আদর্শ দিয়ে একটি বর্বর জাতিকে আদর্শ জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন, জ্বলন্ত আগ্নেয়গিরির মতো ফুটতে থাকা একটি সমাজকে শান্তির সুশীতল ছায়াতলে এনে দিয়েছিলেন, সেই মহান আদর্শে উত্তরণের কোনো চিহ্ন এখন খুঁজে পাওয়া যায় না। মহানবী (স.) এর আদর্শ অনুসরণ না করে শুধু মিলাদ মাহফিল আয়োজনে কোনো লাভ হবে না।’

শনিবার (৩০ অক্টোবর) রাতে নগরের পশ্চিম সুপারিওয়ালা পাড়ায় আয়োজিত এই ওয়াজ মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন সমাজ কল্যাণ পরিষদের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা মোহাম্মদ আব্দুর রশীদ ইসলামাবাদী।

প্রধান অতিথি ছিলেন আঞ্জুমানে আহমদিয়া জাহাঙ্গীরিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসা পরিচালনা পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম আল কাদেরি। প্রধান বক্তা ছিলেন নাজিরহাট কলেজের ইসলামী শিক্ষা বিভাগের অধ্যাপক মাওলানা মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন আল কাদেরি।

ওয়াজ মাহফিলের আগে ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উপলক্ষে আয়োজিত শিশু ও কিশোরদের মধ্যে হামদ, নাত প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য দোস্ত মোহাম্মদ।

বিশেষ অতিথি ছিলেন সুপারিওয়ালা পাড়া সমাজ কল্যাণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক হাসান ইমরান, ২৩ নম্বর উত্তর পাঠানটুলি ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর নিয়াজ মোহাম্মদ খান, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ হান্নান, সাধারণ সম্পাদক আসিফ খান, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি শাহ আলম, সিরাজুল ইসলাম, হাজি সাইয়েদ কোম্পানি, মুজিবুর রহমান, হারুনুর রশিদ, মসিউর রহমান, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা নাসির, সিরাজুল ইসলাম, সমাজ কল্যাণ পরিষদের সভাপতি মীর মোহাম্মদ শাহ আলম এবং সাধারণ সম্পাদক মুসলিম উদ্দিন।