সোমবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

যৌন কেলেঙ্কারি: অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়কত্ব ছাড়লেন টিম পেইন

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, নভেম্বর ১৯, ২০২১, ১২:০৪ অপরাহ্ণ


খেলাধুলা ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলের অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে পদত্যাগ করেছেন টিম পেইন। শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেলে হোবার্টে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ ঘোষণা দেন ৩৬ বছর বয়সী এই উইকেটকিপার ব্যাটার।

পেইন অস্ট্রেলিয়ান টেস্ট ক্রিকেটের অধিনায়ক হিসেবে তার পূর্বের এক সহকর্মীর সঙ্গে অনুপযুক্ত প্রাইভেট টেক্সট এক্সচেঞ্জ (যৌন বিষয়ক আলোচনা) হিসেবে বর্ণনা করার দায় নিয়ে পদত্যাগের ঘোষণা দেন। তার এই সিদ্ধান্তে হতবাক ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ২০১৮ সালের মার্চে অজিদের ৪৬তম টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছিলেন তিনি।

টিম পেইন বলেন, ‘আজ, আমি অস্ট্রেলিয়ান পুরুষ টেস্ট দলের অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত ঘোষণা করছি। এটি একটি অবিশ্বাস্যভাবে কঠিন সিদ্ধান্ত। তবে আমার নিজের, পরিবার এবং ক্রিকেটের জন্য সিদ্ধান্তটি সঠিক।

আমার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কারণ, প্রায় চার বছর আগে আমি তখনকার এক সহকর্মীর সঙ্গে টেক্সট বিনিময়ে জড়িত ছিলাম। সেই সময়ে ঘটনাটি সিএ ইন্টিগ্রিটি ইউনিট তদন্ত করেছিল। যার মধ্যে আমি প্রকাশ্যে সম্পূর্ণভাবে অংশগ্রহণ করেছি। সেই সময় তদন্ত কমিটি এবং ক্রিকেট তাসমানিয়া এইচআর একমত হয়েছিল যে, এটি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার আচরণবিধির কোনো লঙ্ঘন হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘তখন আমাকে দায়মুক্তি দেওয়া হয়েছিল। তবুও আমি সেই সময়ে ঘটনাটির জন্য গভীরভাবে অনুতপ্ত ছিলাম এবং আজও আছি। আমার স্ত্রী এবং পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছিলাম এবং তাদের ক্ষমা ও সমর্থনের জন্য অত্যন্ত কৃতজ্ঞ। ভেবেছিলাম ঘটনাটি পেছনে ফেলে আসছি এবং আমি সম্পূর্ণভাবে খেলার ওপর মনোযোগ দিতে পারছি, যেমনটি আমি গত তিন-চার বছর ধরে করেছি।

যাইহোক, সম্প্রতি আমি জানতে পেরেছি যে, ব্যক্তিগত ওই টেক্সটগুলো এখন ভাইরাল হয়ে গেছে। আর ২০১৭ সালে আমার সঙ্গে ঘটে যাওয়া ঘটনাটি অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট অধিনায়ক বা বৃহত্তর সম্প্রদায়ের মান পূরণ করে না। আমি আমার স্ত্রী, পরিবার এবং অন্য পক্ষকে যে আঘাত ও যন্ত্রণা দিয়েছি তার জন্য গভীরভাবে দুঃখিত। আমাদের খেলাধুলার সুনাম নষ্টের জন্যও আমি দুঃখিত।’

অজি অধিনায়ক বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি যে অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়ানো আমার জন্য সঠিক সিদ্ধান্ত। আমি চাই না যে এটি আসন্ন অ্যাশেজ সিরিজের আগে দলের জন্য অনাকাঙ্খিত বাধা হয়ে উঠুক। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হিসেবে আমি আমার দায়িত্ব উপভোগ করেছি। টেস্ট দলের নেতৃত্ব দেওয়া আমার খেলোয়াড়ি জীবনের সবচেয়ে বড় পাওয়া। সতীর্থদের সমর্থনের জন্য তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ এবং আমরা এক সঙ্গে যা অর্জন করতে পেরেছি তার জন্য গর্বিত।’