বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

কাতার বিশ্বকাপের স্টেডিয়ামে মদ বিক্রি নিষিদ্ধ

প্রকাশিতঃ ১৮ নভেম্বর ২০২২ | ৯:১৮ অপরাহ্ন


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কাতার বিশ্বকাপ শুরুর মাত্র দুইদিন আগে আটটি ভেন্যুতেই মদ বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে কাতার সরকার ও বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) এ ঘোষণা করেছে তারা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

রোববার (২০ নভেম্বর) কাতার বনাম ইকুয়েডরের মধ্যকার উদ্বোধনী ম্যাচ উপলক্ষে ইতোমধ্যে স্টেডিয়ামগুলোর চারদিকে কয়েক ডজন মদ বিক্রির স্টল বসানো হয়েছিল। ২৯ দিনব্যাপী এই টুর্নামেন্ট উপরক্ষে এক মিলিয়নেরও বেশি লোক কাতার ভ্রমণ করবে বলে ধারণা করছে আয়োজকরা। খবর ইএসপিএনের

এদিকে, ফুটবল সমর্থক সমিতি (এফএসএ) বিয়ার বিক্রি নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্তের সময় নিয়ে সমালোচনা করেছে। এফএসএ মুখপাত্র বলেন, খেলা দেখতে আসা সবাই মদ খান না। এটি এমন সময় বন্ধ করা হল যা দুঃখজনক। তবে ১৯৮৬ আসরেও ভেন্যুতে মাদক নিষিদ্ধ ছিল। ২০১৪ বিশ্বকাপেও নিষেধাজ্ঞা ছিল। অতীতে বৈশ্বিক ফুটবল টুর্নামেন্ট আয়োজকরাও এক্ষেত্রে সফল হয়েছে।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আকষ্মিক এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের কোনো কারণ জানায়নি ফিফা। তবে বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ কাতারের সঙ্গে ‘আলোচনার’ পর এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানায় ফিফা। কারণ এটি একটি ইসলামী রাস্ট্র। যেখানে এমনিতেই মদ গ্রহণের উপর কঠোর বিধিনিষেধ রয়েছে।

ফিফার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শুধুমাত্র ফ্যান জোনে এ্যালকোহল পাওয়া যাবে উল্লেখ করে বলা হয়, কাতার বিশ্বকাপে স্টেডিয়ামের চারদিক থেকে মদ বিক্রয়ের পয়েন্টগুলো সরিয়ে নেওয়া হবে। কাতারে বিলাসবহুল আন্তর্জাতিক হোটেল কিংবা রিসোর্টের সঙ্গে যুক্ত নয়, এমন সব রেস্তোরাঁয় মদ বিক্রি নিষিদ্ধ।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ‌এবি ইনবেভ বিষয়টি অনুধাবন করে কাতার বিশ্বকাপ চলাকালে সহায়তা করায় তাদের প্রশংসা করছে টুর্নামেন্টের আয়োজকরা। অবশ্য স্টেডিয়ামের ভিআইপি সুইটগুলোতে পর্যাপ্ত মদ পাওয়া যাবে। যেগুলো বিক্রি করবে ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। এছাড়া দোহায় অবস্থিত ফিফার ফ্যান জোন, কিছু প্রাইভেট ফ্যান জোন এবং ৩৫টি হোটেল ও রেস্টুরেন্টে বিয়ার পাওয়া যাবে।