বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০

সাহিত্যে নোবেল পেলেন নরওয়ের লেখক জন ফসে

প্রকাশিতঃ ৫ অক্টোবর ২০২৩ | ৫:১১ অপরাহ্ন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চলতি বছর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন নরওয়ের লেখক জন ফসে। আজ বৃহস্পতিবার (০৫ অক্টোবর) বাংলাদেশ সময় বিকেল পৌনে ৪টায় সুইডেনের স্টকহোমে রয়্যাল সুইডিস একাডেমি বিজয়ী হিসেবে তার নাম ঘোষণা করে।

২০২২ সালে সাহিত্যে নোবেল পেয়েছিলেন ফরাসি নাগরিক আনি এরনো। লেখায় ‘সাহস এবং তীব্র নির্লিপ্ততার’ সমাবেশ এবং এর সাহায্যে ব্যক্তিগত স্মৃতির শিকড় থেকে জীবনবোধের বিচ্ছিন্নতা, সংযম এবং অন্যান্য বিষয় উন্মোচন করার জন্যই তাকে এই পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।

প্রতিবছর অক্টোবরের প্রথম সোমবার থেকে শুরু হয় নোবেল পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা। সেই হিসেবে এবারও নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা শুরু হয় সোমবার (০২ অক্টোবর) থেকে। সাধারণত নোবেল শান্তি পুরস্কার ঘোষণা হয় নরওয়ে থেকে। সাহিত্য ও অর্থনীতির মতো পুরস্কারগুলো ঘোষণা হয় সুইডেন থেকে।

গত সোমবার চিকিৎসাবিজ্ঞানে নোবেল বিজয়ী হিসেবে হাঙ্গেরিয়ান-মার্কিন গবেষক কাতালিন কারিকো ও মার্কিন বিজ্ঞানী ড্রিউ ওয়েইজম্যানের নাম ঘোষণা করে রয়্যাল সুইডিস একাডেমি। কভিড ১৯-এর বিরুদ্ধে কার্যকর এমআরএনএ টিকার বিকাশে সহায়ক নিউক্লিওসাইড বেস পরিবর্তনের বিষয়ে আবিষ্কারের জন্য এই পুরস্কার দেওয়া হয় তাদের।

এরপর মঙ্গলবার (০৩ অক্টোবর) পদার্থে নোবেল বিজয়ী হিসেবে মার্কিন বিজ্ঞানী পিয়েরে অ্যাগোস্টিনি, হাঙ্গেরির বিজ্ঞানী ফ্রান্ক রাউস এবং ফরাসি বিজ্ঞানী অ্যান ল’হুইলিয়ারের নাম ঘোষণা করে রয়্যাল সুইডিস একাডেমি। পদার্থের ইলেক্ট্রন গতিবিদ্যায় বিশেষ অবদান রাখায় তাদের এই পুরস্কার দেওয়া হয়।

বুধবার (০৪ অক্টোবর) রসায়নে নোবেল পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। এবার রসায়নে নোবেল পেয়েছেন তিন বিজ্ঞানী মুঙ্গি জি বাভেন্দি, লুই ই ব্রুস ও অ্যালেক্সেই আই আকিমভ। কোয়ান্টাম ডটের আবিষ্কার ও উন্নয়ন এবং ন্যানো ক্রিস্টাল প্রযুক্তি বা ন্যানোপার্টিক্যালের আকার ও বৈশিষ্ট্য নির্ধারণে অবদান রাখায় তাদের নোবেল পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।

আগামীকাল শুক্রবার (০৬ অক্টোবর) শান্তিতে নোবেল বিজয়ীর নাম জানা যাবে। দুই দিন বিরতি দিয়ে ৯ অক্টোবর ঘোষণা করা হবে অর্থনীতির নোবেল। মর্যাদাপূর্ণ এই পুরস্কার ঘোষণার অনুষ্ঠান সরাসরি নোবেল পুরস্কারের ওয়েবসাইট এবং ডিজিটাল চ্যানেলে সম্প্রচার করা হচ্ছে।

সুইডিশ বিজ্ঞানী ও ডিনামাইটের উদ্ভাবক আলফ্রেড নোবেলের মৃত্যুর ৫ বছর পর (১৯০১ সাল) তার নামে ও রেখে যাওয়া অর্থে এই পুরস্কার দেওয়া হয়। পরে এতে যুক্ত হয় অর্থনীতি।

আলফ্রেড নোবেলের মৃত্যুর দিন প্রতিবছর ডিসেম্বরের ১০ তারিখ বিজয়ীদের হাতে পুরস্কারের অর্থ তুলে দেওয়া হয়। এ সময় তাদের একটি সনদ ও একটি স্বর্ণপদক দেওয়া হয়। তবে এ বছর থেকে পুরস্কারের অর্থমূল্য আগের চেয়ে বেড়েছে। আগে এটি ছিল ৮৯ হাজার মার্কিন ডলার। এবার তা বাড়িয়ে নয় লাখ ৮৯ হাজার ডলার করা হয়েছে।